অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশ ব্যাঙ্কের চুরি যাওয়া ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার তিন মাসের মধ্যে বাংলাদেশ ফেরত পেতে পারে বলে সে দেশের অ্যান্টি মানিলন্ডারিং কাউন্সিলের পক্ষ থেকে আশা প্রকাশ করা হয়েছে।
এএমসিএল-এর মহাপরিচালক জুলিয়া বাকাই আবাদ সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, আইনি প্রক্রিয়া দীর্ঘ হওয়ার সম্ভাবনা কম। কারণ এখানে বিরোধী পক্ষ অনুপস্থিত। তাই আশা করা যায়, তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে বাংলাদেশকে দ্রুততম সময়ের মধ্যে টাকা ফেরত দেয়া সম্ভব। আগামী ২০ দিনের মধ্যে আদালত সংক্ষিপ্ত শুনানির দিন ধার্য করবেন বলে স্থির রয়েছে।
এ বছরের গোড়ার দিকে নিউ ইয়র্কের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাঙ্কে রাখা বাংলাদেশ ব্যাঙ্কের ১০ কোটি মার্কিন ডলার চুরি হয়। এর মধ্যে ফিলিপাইনে নিয়ে যাওয়া হয় ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার। শ্রীলঙ্কায় যায় ২ কোটি ডলার। যা ইতোমধ্যেই উদ্ধার হয়েছে।
ওদিকে গতকাল ফিলিপাইনের ক্যাসিনো জাঙ্কেট অপারেটর কিম ওং আরো ৪৩ লাখ ডলার ফেরত দিয়েছেন। এর আগে প্রথম দফায় কিম ৪৬ লাখ ৩০ হাজার ডলার ফেরত দেন। দ্বিতীয় দফায় ফেরত দেন ৩ কোটি ৮০ লাখ পেসো।
উল্লেখ করা যায় যে, কিম ওং শুনানিতে বলেছেন, বাংলাদেশ থেকে চুরি করা ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার দু’জন চীনা ব্যবসায়ী ফিলিপাইনে নিয়ে যান।
ঢাকা থেকে মতিউর রহমান চৌধুরীর রিপোর্ট

XS
SM
MD
LG