অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাসার আল আসাদের স্ত্রী আসমা আসাদের বৃটিশ পাসপোর্ট বাতিলের দাবী


সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাসার আল আসাদের স্ত্রী আসমা আসাদের বৃটিশ পাসপোর্ট বাতিল নিয়ে আলোচনা চলছে। কয়েকজন এমপি মিজ আসমাকে সন্ত্রাসবাদের সপক্ষে তার মর্যাদা ব্যবহারের দায়ে অভিযুক্ত করছেন। তাদের যুক্তি হলো, সিরীয় প্রেসিডেন্টের স্ত্রী হিসাবে তিনি যেহেতু বর্বোরচিত শাসন আমলকে সমর্থন দিচ্ছেন তাই বৃটিশ সরকারের উচিত হবে তার নাগরিকত্ব বাতিল করে দেয়া।

আসাদের সঙ্গে আসমার বিয়ে হয় ২০০০ সনে। তাদের দু’জনের প্রথম সাক্ষাৎ হয়েছিল লন্ডনেই। এরপর পরিণয় ঘটে। আর সেটা প্রকাশ করা হয়েছিল সিরীয় শীর্ষ পদে আসাদের অভিষেকের ছয় মাস পরেই।

সম্প্রতি সিরীয় প্রেসিডেন্টের ইনস্ট্রাগ্রাম একাউন্টে আসাদ সমর্থকদের সঙ্গে মিজ আসমার বিরল সেলফি প্রকাশিত হওয়ার পর তোলপাড় শুরু হয় চারদিকে। এরই পটভূমিতে বৃটেনের লিবারেল ডেমক্রেটস দলের সাংসদরা মিজ আসমার নাগরিকত্ব বাতিলের দাবিতে সোচ্চার।

লিবারেল ডেমক্রেটস দলীয় পররাষ্ট্র বিষয়ক মুখপাত্র মিস্টার টম ব্রেক এমপি সানডে টেলিগ্রাফে লেখা এক নিবন্ধে বলেছেন, বৃটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন মনে করেন, সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট আসাদ একজন চরম সন্ত্রাসী। তাই তিনি সিরিয়ার বিরুদ্ধে অধিকতর ব্যবস্থা নিতে অন্যন্য দেশের প্রতি আহবান জানিয়েছেন। সেকারনে বৃটিশ সরকার এখন আসমা আসাদকে জানিয়ে দিতে পারে যে, আপনি হয় একটি বর্বরোচিত সরকারের পক্ষের অবস্থান ত্যাগ করুন নতুবা বৃটিশ নাগরিকত্ব পরিত্যাগ করুন। তবে বৃটিশ সরকারের তরফে এখনও এ নিয়ে কিছু বলা হয়নি।

XS
SM
MD
LG