অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মীর কাশেম আলীর ফাঁসির দন্ড কার্যকর করায় পাকিস্তান এবং তুরস্কের প্রতিক্রিয়া নিয়ে বিশ্লেষন


যুদ্ধাপরাধের বিচারে জামায়াতে ইসলামীর নেতা মীর কাশেম আলীর ফাঁসির দন্ড কার্যকর করায় পাকিস্তান এবং তুরস্ক যে নেতিবাচক ও বিরূপ প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করেছে- তাকে বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ বলে মনে করেন বাংলাদেশের বিশেষজ্ঞ ও বিশিষ্টজনেরা।
১৯৭৪ সালের ৯ এপ্রিল দিল্লিতে পাকিস্তানী যুদ্ধবন্দী প্রর্ত্যপণের লক্ষ্যে বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে স্বাক্ষরিত চুক্তিতে বাংলাদেশের পক্ষে স্বাক্ষরদাতা এবং ওই সময়ের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. কামাল হোসেন বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের ব্যাপারে পাকিস্তান প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক ড. আমেনা মহসিন বলেন, পাকিস্তান এবং তুরস্কের প্রতিক্রিয়া অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপের শামিল। তিনি আরও বলেন, এর ফলে ওই দুই দেশের সাথে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে শীতিলতা দেখা দেবে।
এদিকে, মীর কাশেম আলীর ফাঁসির দন্ড কার্যকরে তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় প্রতিক্রিয়া জানিয়ে যে বিবৃতি দিয়েছিল রোববার, বাংলাদেশের পররাষ্ট্র দফতর তার প্রতিবাদ জানিয়ে তুরস্ক সরকারের কাছে এক প্রতিবাদপত্র পাঠিয়েছে। ঢাকায় তুরস্ক দূতাবাসের কাছে ওই প্রতিবাদপত্র হস্তান্তর করা হয়েছে সোমবার। প্রতিবাদপত্রে বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ না করার জন্য তুরস্ককে পরামর্শ দেয়া হয়েছে।...ঢাকা থেকে আমীর খসরু

XS
SM
MD
LG