অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

জাপানে দ্বিতীয় পারমানবিক চুল্লির সংকট ভুমিকম্পের দূর্গতদের সমস্যা আরও বাড়িয়ে তুলেছে


J

J

জাপান দ্বিতীয় একটি পারমানবিক বিদ্যুত্ কেন্দ্রে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে। ওই বিদ্যুত্ কেন্দ্রটি শুক্রবারের প্রলয়ংকরি ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ওদিকে রবিবার তৃতীয় রাতের মতো লক্ষ লক্ষ মানুষ অস্থায়ী আশ্রয়স্থলে কাটিয়েছে।

আন্তর্জাতিক টিম এবং বিপুল সংখ্যক ত্রাণকর্মী জাপানে আসছেন। ওদিকে সে দেশ প্রচন্ড ভুমিকম্প ও সুনামির পর এবং অব্যাহত পারমানবিক সঙ্কট মোকাবেলা করতে চেষ্টা করছে। উদ্ধার প্রচেষ্টা এবং স্থানীয় ত্রাণকর্মীদের টিম গুলো সমন্বয়ে সাহায্য করার জন্য জাতিসংঘের বিশেষজ্ঞরা এখন জাপানে আছেন।

এপর্যন্ত প্রায় ৭০ টি দেশ ত্রাণ সাহয্য দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছে। সন্ধান ও উদ্ধারে দক্ষ, দক্ষিণ কোরিয়া ও চীনের বিশেষ টিম ইতিমধ্যে জাপানে পৌচেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের বিমানবাহী রনতরী ইউ এস এস রনাল্ড রেগান রবিবার জাপানের উপকূলে পৌচেছে। যুক্তরাষ্ট্রের অন্যান জাহাজ ওই এলাকায় যাওয়ার পথে রয়েছে। জাপানে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত জন রুস বলেছেন যুক্তরাষ্ট্র যে কোন ভাবে সাহায্য করতে প্রস্তুত।

জাপানের এই প্রাকৃতিক ও পারমানবিক দূর্যোগ , দেশটির অর্থনীতিতে কি ধরণের প্রভাব ফেলতে পারে সে সম্পর্কে ভয়েস অফ আমেরিকার বাংলা বিভাগের সঙ্গে কথা বলেছেন টোকিও থেকে সাংবাদিক ও অধ্যাপক মঞ্জুরুল হক ।

সংশ্লষ্ট

XS
SM
MD
LG