অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশে উগ্রবাদ :উত্থান ও কারণ:তৃতীয় পর্ব

  • আনিস আহমেদ

বাংলাদেশে উগ্রবাদ :উত্থান ও কারণ:তৃতীয় পর্ব

বাংলাদেশে উগ্রবাদ :উত্থান ও কারণ:তৃতীয় পর্ব

বাংলাদেশের মতো একটি উদারপন্থি গণতান্ত্রিক রাস্ট্রে উগ্র মতবাদ এবং জঙ্গিবাদের বিস্তারের বিষয়টি, এর কারণ ও প্রতিক্রিয়ার বিষয়টিও। বাংলাদেশের মানুষ , তার স্বাধীনতার আগে থেকেই গণতন্ত্রের প্রতি নিবেদিত থেকেছে এবং বস্তুত বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকে যৌক্তিকতা প্রদান করেছে , তার গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ। তা হলে এই গণতান্ত্রিক চেতনা সম্পন্ন একটি রাষ্ট্রে জঙ্গিবাদের বিস্তার ঘটলো কেন ? এ সম্পর্কে সিঙ্গুপুরের International Center for Political Violence & Terrorism Research এর অধ্যাপক রোহান গুণরাত্না বলেন যে আসলে গণতন্ত্র কিংবা গণতন্ত্রের অনুপস্থিতির সঙ্গে সন্ত্রাসের কোন সম্পর্ক নেই । সুতরাং সন্ত্রাসবাদ গণতান্ত্রিক এবং অগণতান্ত্রিক উভয় সমাজেই দেখা গেছে। তিনি বলেন যেমন উত্তর গোলার্ধের অনেক দেশেই গণতন্ত্র আছে , অথচ সেখানকারও কোন কোন দেশে আমরা সন্ত্রাস লক্ষ্য করেছি , যেমন লক্ষ করেছি দক্ষিণ গোলার্ধ বা ল্যাটিন আমেরিকার দেশগুলোতে।

তবে বাংলাদেশে জঙ্গিবাদের বিস্তারের পেছনে অন্যান্য কারণ ও কাজ করেছে । বাংলাদেশের রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে কলহ ও অন্তর্দ্বন্দ্ব, ছাত্র সংগঠনেরগুলোর মধ্যে সহিংসতা এবং দূর্নীতিও সম্ভবত একটি কারণ যা উগ্রমতবাদ বিস্তারে বাহ্যত মদদ জুগিয়েছে । ব্রিটেনের বিশিষ্ট সন্ত্রাস বিরোধী বিশেষজ্ঞ ক্রিস ব্ল্যাকবার্ন , New Castle-Upon Time শহর থেকে যেমনটি টেলিফোনে আমাদের বললেন যে বাংলাদেশে উগ্রবাদের উত্থানের জন্যে দুর্নীতি হচ্ছে অন্যতম একটি কারণ এবং কথিত ইসলামি দলগুলি এই দূর্নীতির নিরসনে তাদের কাছে সমাধান আছে বলে প্রচার করে যদিও এ কথাও সত্যি যে তাদের সঙ্গে জঙ্গিদের সম্পৃক্ততাও রয়েছে।
ক্রিস ব্ল্যাকবার্ন বাংলাদেশে জংগিবাদের আদর্শিক প্রসারের জন্যে আরো কিছু বিষয়কে দায়ী করেন
ক্রিস ব্ল্যাক বার্ন মনে করেন যে এ রকম অভিযোগ পাওয়া যায় যে মধ্যপ্রচ্যে কর্মরত বাংলাদেশি শ্রমিকদের, যারা দুবাই এবং মধ্যপ্রচ্যের অন্যান্য দেশে কাজ করে , তাদেরকে বাংলাদেশে সক্রিয় লশকর এ তৈয়বা এবং হুজিরা লক্ষ করে প্রণোদিত করার চেষ্টা করে।

বাংলাদেশে জঙ্গি মৌলবাদ সম্পর্কে একটি পূর্ণাঙ্গ প্রামাণ্য চিত্র তৈরি করেছেন, বাংলাদেশের বিশিষ্ট মানবাধিকার কর্মি শাহরিয়ার কবির । তাঁর সেই Portrait of Jihad ছবিতে তিনি এই বিষয়টিকে কি ভাবে দেখেছেন ?

তিনি তাঁর তথ্যবহুল সেই চিত্র Portrait of Jihad এ সে কথাই দেখিয়েছেন । শাহরিয়ার কবির বলছেন যে তিনি তাঁর ছবিতে জঙ্গি মৌলবাদের সঙ্গে যুক্ত বর্তমান ও প্রাক্তন কয়েকজন ব্যক্তির সাক্ষাৎকার নিয়েছেন এবং তারা বাংলাদেশে জঙ্গি তৎপরতার বিস্তার ঘটানোর জন্য পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আই এস আই কে দায়ি করেছে। তিনি তার ঐ ছবিতে হারকাতুল জিহাদের সূচনার প্রসঙ্গটিও উত্থাপন করেন। শাহরিয়ার কবির বলেন যে তাঁর ছবিতে এ রকম অনেক জঙ্গিই জাময়াতে ইসলামের সঙ্গে সম্পৃক্ততার কথা তবে জামায়াতে ইসলামি তো গণতান্ত্রিক পদ্ধতি মেনেই বাংলাদেশে নির্বাচনে অংশ নিয়েছে, একটি গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলেছে , তা হলে কি জামায়াতের মধ্যে কোন স্ববিরোধীতা আছে, এই প্রশ্নের জবাবে ক্রিস ব্ল্যাক বার্ন বলছেন যে মওদুদির দর্শন অনুযায়ী এবং সেই দর্শন যদি জামায়াতে ইসলামি অনুসরণ করে থাকে , তা হলে তিনি এ ব্যাপারে কোন স্ববিরোধীতা দেখেন না যে জামায়াতে ইসলামি ধরুন গণতান্ত্রিক দল হিসেবে কাজ করছে আবার জঙ্গিদের সঙ্গে ও সম্পর্ক বজায় রাখছে । কারণ শেষ কথাটা হচ্ছে , ইসলামি বিপ্লব ঘটাতে চায়। মওদুদীর ঐ আদর্শ প্রতিষ্ঠার জন্যে যে কোন উপায় গ্রহণের কথা বলা হয়েছে।

বাংলাদেশে জঙ্গিবাদ , উত্থান ও কারণ সম্পর্কে আরো কিছু কথা , কিছু বিশ্লেষণ , আমাদের সোমবারের সঙ্কলনে , শুনবেন আগামী ৯ই অগাস্ট ।

XS
SM
MD
LG