অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশের এক আদালত জামায়াতে ইসলামির নেতার বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের অভিযোগ এনেছে


বাংলাদেশের একটি বিশেষ আদালত জামায়াতে ইসলামির একজন নেতার বিরুদ্ধে ১৯৭১ সালে পাকিস্তানের সঙ্গে মুক্তিযুদ্ধের সময়ে যুদ্ধাপরাধ করার অভিযোগ এনেছে। সোমবার ঢাকায় ঐ বিশেষ ট্রাইবুনালটি হত্যা, ধর্ষণ, লুঠতরাজ, জোর করে হিন্দুদের মুসলমান করানোর মতো মোট ২০টি অভিযোগ এনেছে। বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামির এই শীর্ষ নেতাকে ঐ সময়ে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর সহায়তায় কমপক্ষে ৫০ জনকে হত্যার জন্যে দা্যী করা হয়েছে। জামায়াতের আরও চারজন নেতা ঐ একই অভিযোগের সম্মুখীন। সাঈদি সোমবারের শুনানীর সময়ে এই সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ১৯৭১ সালে নয় মাসের যুদ্ধের পর তৎকালীন পুর্ব পাকিস্তান বাংলাদেশ নাম নিয়ে স্বাধীনতা অর্জন করে। সেই সময় তিরিশ লক্ষ লোককে হত্যা করা হয় এবং হাজার হাজার নারী ধর্ষণের শিকার হোন। অধিকার গোষ্ঠিগুলি পূর্ব পাকিস্তানের সংখ্যালঘু হিন্দু হত্যার মাধ্যমে জাতিগোষ্ঠিগত শুদ্ধি অভিযান চালানোরও অভিযোগ এনেছে।

এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানিয়েছেন ঢাকা সংবাদদাতা আমির খসরু ।

XS
SM
MD
LG