অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বঙ্গসম্মেলনের উপর প্রতিবেদন

  • আনিস আহমেদ

বঙ্গসম্মেলনের উপর প্রতিবেদন

বঙ্গসম্মেলনের উপর প্রতিবেদন

ওয়াশিংটন ডিসির অদূরে একত্রিশতম বঙ্গ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে । গতকাল শনিবার ছিল এই সম্মেলনের দ্বিতীয় দিন ।

বল্টিমোরের বিশাল কনভেশন সেন্টারের সবটুকু জুড়েই চলছে এবারকার এই বঙ্গসম্মেলন যাকে এন এ বি সি বা নর্থ আমেরিকান বেঙ্গলি কনফারেন্স ও বলা হয়। শিল্প ও সাহিত্য কেন্দ্রিক পরিবেশনার পাশাপাশি ছিল নানান রঙ্গের সব স্টলও , যেখানে আগ্রহী প্রবাসী বাঙালি ক্রেতাদের উপচে পড়া ভীড় লক্ষ্য করা গেছে। শাড়ি-গয়না থেকে শুরু করে , বইপত্র , সিডি-ডিভিডির দোকানেও ক্রেতারা ভিড় জমিয়েছেন। দোকান দেখেছি আবাসন প্রকল্পেরও ।

গতকালকের অনুষ্ঠানে বেশ কিছু সেমিনার –সিম্পোজিয়াম ও হয়েছে । অভিবাসীদের সাহিত্য সংস্কৃতির ওপর আলোকপাত করেছেন বিশিষ্ট অনুবাদক ও সাহিত্যিক কেতকী কুশারি ডাইসান , তরুণ প্রজন্মের কাছে রবীন্দ্রনাথকে প্রাসঙ্গিক করে তোলার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেছেন কথাসাহিত্যিক দিলারা হাশিম। রবীন্দ্রনাথের গান কেন চিরঞ্জিব এ সম্পর্কে বক্তব্য রেখেছেন আরেক কথা সাহিত্যিক নবকুমার বসু ।

রবীন্দ্রনাথের গান অনুবাদের বিষয়ে অধ্যাপক অরুণা চক্রবর্তী কিছু আগ্রহ-উদ্দীপক বিষয় । তিনি বলছিলেন , আমার মুক্তি আলোয় আলোয় এই গানটি অনুবাদে মুক্তি শব্দটিকে নিয়ে বিভ্রাটের কথা ।

শনিবারের সন্ধ্যে বেলায় ত্রয়ী নাট্যশিল্পি মিসড কল নামের একটি হাসির নাটক পরিবেশন করেন ।

শনিবারের সন্ধ্যার মূল আকর্ষণ ছিল গানের আসর। দুটি মঞ্চ স্ফুলিঙ্গ ও সোনার তরীতে তখন সত্যিই ছিল না কোন তিল ধারণের ঠাই। স্ফুলিঙ্গে যখন চলছিল কৌশিকা দেসিকানের রাগ সঙ্গীত , তখন খানিকটা দূরেই , সোনার তরীতে উঠেছেন অলকা ইয়াগনিক এবং কুমার সানু

গানের রেশ ধরেই শেষ হলো শনিবারের এই আয়োজন , তখনও যেন বিশ্ববাঙালির এই মিলন মেলায় আনন্দের রেশ কাটেনি একটুকু।

XS
SM
MD
LG