অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রী হিলারি ক্লিন্টন বর্তমানে ভারতে রয়েছেন , যেখানে তিনি নতুন দিল্লি সরকারের প্রতি আহ্বান জানাবেন যাতে তারা ইরান থেকে জ্বালানি তেল আমদানি হ্রাস করে।

বাংলাদেশ ও চীন সফরের পর ক্লিন্টন আজ কোলকাতায় গিয়ে পৌঁছেছেন । তিনি সোমবার ভারতের শীর্ষ সরকারী কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন বলে কথা আছে।

এ দিকে খবরে বলা হচ্ছে যে ভারত ইরানি তেলের ওপর তার নির্ভরতা কিছুটা কমিয়েছে কিন্তু দক্ষিণ এশিয়ার এই দেশটির দ্রুত প্রবৃদ্ধির কারণে , তার প্রয়োজন বিপুল জ্বালানি শক্তি। ইরান থেকে যারা জ্বালানি তেল কিনছে সে সব দেশের ব্যাঙ্কের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করার ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রের আইনের তীব্র সমালোচনা করেছে। পারমানবিক উচ্চাকাঙ্খার জন্যে যুক্তরাষ্ট্র এবং পশ্চিমি দেশগুলো ইরানের বিরুদ্ধে এই ব্যবস্থা নিয়ে আসছে। ক্লিন্টনের এই ভারত সফরের সময়ে , সেখানে ইরানের একটি বানিজ্যিক প্রতিনিধিদল ও সফর করছে।

যুক্তরাষেট্রর সঙ্গে মুক্ত বানিজ্য রোধে ভারত সরকারকে প্রভাবিত করেন পশ্চিম বঙ্গের মূখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় । ক্লিনটন তার এই সফরে সেই প্রসঙ্গটিও উত্থাপন করছেন বলে মনে করা হয়। এ ব্যাপারে নতুন দিল্লির ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ পাবলিক ফিন্যান্স এন্ড পলিসির , অর্থনীতিবিদ এন ভাণুমূর্তি বলেন যে গত বারও মমতা সরকারের সমালোচনা করেছিলেন। আর বর্তমান সরকারের কাছে তার মতামত গুরুত্ব রাখে। পররাষ্ট্র মন্ত্রী ক্লিন্টন যে মমতার সঙ্গে বৈঠক করেছেন তা এই উপলব্ধির কারণেই যে স্থানীয় নেতারাই ভারতে মূখ্য ভুমিকা রাখছেন।

XS
SM
MD
LG