অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

গাদ্দাফি ও তার সহযোগিদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারি


আন্তর্জাতিক আদালত গাদ্দিাফির বিরুদ্ধে জারি করেছে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

আন্তর্জাতিক আদালত গাদ্দিাফির বিরুদ্ধে জারি করেছে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের বিচারকরা আজ সোমবার লিবীয় নেতা মোয়াম্মার গাদ্দাফি এবং তার দুজন বিশ্বস্ত সহকারীর বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারি করেছেন।

আই সি সি ‘র অভিশংসক লুই মরেনো ওকাম্পো, মি গাদ্দাফি , তার পুত্র সাইফ আল ইসলাম এবং লিবীয় গোয়েন্দা দপ্তরের প্রধান আব্দুল্লাহ সেনুসির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারি করেন।

মরেনো ওকাম্পো বলেন যে মি গাদ্দাফি এবং তার সরকার বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে আক্রমণ পরিচালনা করেন এবং মসজিদ থেকে বেরিয়ে আসা অসামরিক লোকজনের ওপর আচমকা গুলি চালানোর নির্দেশ দেন।

সভাপতির আসনে উপবিষ্ট বিচার সানই মোনাগেং বলেন যে লিবিয়ার নেতা এবং তার ছেলে যে অসামরিক লোকদের হত্যা ও নির্যাতনের জন্যে দায়ি সেটা বিশ্বাস করার বৈধ কারণ রয়েছে।

মি গাদ্দাফির সরকার অসামরিক লোকদের লক্ষ্য করে আক্রমণ চালানোর কথা অস্বীকার করেছে বরঞ্চ বলছে যে লিবীয় বিদ্রোহীদের সমর্থন করে বিমান আক্রমণ চালানোর সময়ে নেটোই অসামরিক লোকদের লক্ষবস্তুতে পরিণত করেছে।

লিবিয়ার অন্তবর্তী জাতীয় পরিষদের নেতা মুস্তফা আব্দেল জলিল সতর্ক করে দিয়েছেন যে লিবিয়ার নেতাকে লুকোতে সাহায্য করবে যারাই তাদের বিরুদ্ধে নতুন সরকার আ্‌ইনি ব্যবস্তা নেবে এবং তিনি মি গাদ্দাফির প্রতি ঘনিষ্ঠ লোকজনকে এটা উপলব্ধি কতে বলেছেন যে এখন সময় এসছে তারা যেন গাদ্দাফি থেকে দূরে সরে দাড়ান।

বিদ্রোহীদের অভ্যন্তরীণ বিষয়ক মন্ত্রী আহমাদ দারাত বলেন যে এ ধরণের গ্রেপ্তারী পরোয়ানা লিবিয়ার নেতার উপর চাপ বৃদ্ধি করবে , এবং সম্ভবত তাকে দেশ ছাড়তে ও বাধ্য করতে পারে।

এ দিকে লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলিতে প্রত্যক্ষদর্শিরা বলছে যে তারা দুটি প্রচন্ড বিস্ফোরণের শব্দ শুনতে পেয়েছে এবং মি গাদ্দাফির বাব আল অজিজিয়া প্রাঙ্গন থেকে ধোয়া উড়তে দেখেছে।

XS
SM
MD
LG