অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

১১ সেপ্টেম্বরের পর যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে বিশ্বজোড়া সন্ত্রাস বিরোধি লড়াইয়েন সূচনা


নিউ ইয়র্কে এ টেবিলে ৯/১১ 'র নিদর্শন

নিউ ইয়র্কে এ টেবিলে ৯/১১ 'র নিদর্শন

এই রবিবার যুক্তরাষ্ট্রে সন্ত্রাসী হামলা নাইন-ইলেভেনের দশ বছর পূর্ণ হতে চলেছে। ১০ বছর পর বিশ্ব পরিস্থিতি এবং পরিবর্তন এবং সেই সঙ্গে নাইন-ইলেভেনের প্রতিক্রিয়া নিয়ে আমাদের ধারাবাহিক পরিবেশনার আজকের পর্ব । যুক্তরাষ্ট্রে ২০১১’এর সেপ্টেম্বর সন্ত্রাসী হামলার হবার পর যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে পাল্টা পদক্ষেপে বিশ্বজোড়া সন্ত্রাস বিরোধি লড়াই শুরু হয়ে যায় ।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে প্রথমেই সৈন্য পাঠানো হয় আফগানিস্তানে, তার পর যুক্তরাষ্ট্র বাহিনী যায় ইরাকে । যুক্তরাষ্ট্র নেতৃত্বাধীন যুদ্ধের , ইচ্ছাকৃত নয় বা পরিকল্পনায় ছিলো না এ রকমের এক ফলোদয়ে ইরাকের স্বৈরশাসক সাদ্দাম হোসেনের গদীচ্যুতি ঘটে। ইরাকে অভ্যন্তরীণ সংঘাত-সংঘর্ষে দীর্ঘ আট বছর ইরাকি ছেলেমেয়েদেরকে যুদ্ধের খেসারত দিতে হয়, জীবন তাদের বিষময় হয়ে ওঠে । মোহাম্মদ আহমদ এবং সাদেক আলি এক সঙ্গে খেলেছে , বড়োও হয়েছে এক সঙ্গেই প্রায়,বয়সের ব্যবধান তাদের মাত্রই কয়েক মাসের; একসঙ্গে স্কুলে গিয়েছে একদিন বড়ো নামকরা ফুটবল খেলোয়াড় হবে স্বপ্ন দেখেছে দু বন্ধূ মিলে ।

ওদিকে , ২০০১ সালের সেপ্টেম্বরের সন্ত্রাসী হামলার পরই গূয়ান্তানামো বে’র বন্দী শিবীর সন্ত্রাস যুদ্ধে আটকদের বন্দীশালায় পরিণত হয় । এ বন্দীশালার সমর্থকেরা বলেন – সন্ত্রাস বিরোধি যূদ্ধের জন্যে এ বন্দীশালা অতীব গূরুত্বপূর্ণ । বিপক্ষিয় সমালোচকদের মতে এ বন্দীশালায় বন্দীদের জিজ্ঞাসাবাদের নৃশংস তওরতরিকা সারা দুনিয়া জুড়ে যুক্তরাষ্ট্রের ভাবমূর্তীকে ক্ষূন্ন ক’রেছে ।এখানে যাদেরকে আটকিয়ে রাখা হ’য়েছে , তারা কেউ কেউ প্রত্যক্ষ অথবা পরোক্ষভাবে ২০০১ সালের সেপ্টেম্বর সন্ত্রাসী হামলার ষড়যন্ত্রে অংশ নিয়েছিলো বলে সন্দেহ করা হয় ।


XS
SM
MD
LG