অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

থাই প্রধানমন্ত্রী বন্যার পানি নামার ব্যাপারে আশাবাদী


থাই প্রধানমন্ত্রী বন্যার পানি নামার ব্যাপারে আশাবাদী

থাই প্রধানমন্ত্রী বন্যার পানি নামার ব্যাপারে আশাবাদী

থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী রোববার এ ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে কয়েক দশকের মধ্যে সেখানকার সব চেয়ে মারাত্মক বন্যা সত্বেও রাজধানীতে আর বাড়তি কোন রকমের বিপর্যয় ঘটবে না।

ইংলুক শিনাওয়াত্রা তার স্বদেশবাসীদের এই বন্যায় মোকাবিলায় সরকারের সক্ষমতা্র ওপর আস্থা রাখতে বলেছেন যদি ও রোববার ব্যাঙ্ককের কোন কোন বাঁধ উপচে পানি শহরে প্রবেশ করে।

শহরের উত্তরাঞ্চলের এলাকা এবং গ্রামের ও এক –তৃতীয়াংশ শনিবার নিমজ্জিত হয়ে যায় । থাইল্যান্ড উপসাগর থেকে আসা প্রচন্ড জোয়ারের পানি শহরটির চাও ফ্রায়া নদীর খাড়িতে সোমবার পর্যন্ত জমে থাকবে বলে মনে হচ্ছে।শহরের কেন্দ্রস্থলের ভবনগুলোর চার পাশে বালির বস্তা দেওয়া হয়েছে তবে ব্যাঙ্ককের বিখ্যাত গ্র্যান্ড প্যালেস এবং পর্যটকদের জন্যে অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ নিদর্শনের এলাকায়ও গোড়ালি সমান পানি প্রবেশ করেছে।

হাজার হাজার লোক বার্শের ভেলয় , ভ্যঅন গাড়িতে , সেনাবাহিনীর ট্রাকে এমন কী পায়ে হেটে ঐ এলাকা ছেড়ে দক্ষিণে আরও উচু জমিতে গিয়ে আশ্রয় নিয়েছেন এবং অনেকে আবার শহর ছেড়েই চলে গেছেন। জুলাই মাসে শুরু হওয়া এই বন্যাি গত ৫০ বছরের মধ্যে সে দেশে সব চেয়ে মারাত্মক বন্যা এবং এতে অন্তত ৩৮০ জন প্রাণ হারিয়েছে। জিনিষপত্রের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এখন ও নির্ধারণ করা হয়নি।

প্রধানমন্ত্রী ইংলুক তার সাপ্তাহিক বেতার ভাষণে শনিবার বলেন যে এ সপ্তায় বন্যার পানি নামতে শুরু করবে। দেশের মধ্যাঞ্চল থেকে পানি এরই মধ্যে নেমেছে।

XS
SM
MD
LG