অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশে যুদ্ধাপরাধ আইন অনেক বেশি উদার ও স্বচ্ছ : সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত


বাংলাদেশে যুদ্ধাপরাধ আইন অনেক বেশি উদার ও স্বচ্ছ : সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত

বাংলাদেশে যুদ্ধাপরাধ আইন অনেক বেশি উদার ও স্বচ্ছ : সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত

জাতিসংঘের ৬৬তম অধিবেশনে বাংলাদেশের একটি সংসদীয় দলের নের্তৃত্ব দিচ্ছেন বর্তমানে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সদস্য এবং আইন ও সংসদীয় কমিটির চেয়ারম্যান সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত। অর্থনৈতিক উন্নয়নে নারীদের সম্পৃক্ততা বিষয়ক এক আলোচনায় মি সেনগুপ্ত বাংলাদেশের পক্ষে বক্তব্য রেখেছেন। বিশেষত বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক সঙ্কটের প্রভাব নারীদের ওপর কতটুকু পড়ছে এবং এ ব্যাপারে বাংলাদেশ সরকারের ভূমিকা কি এ সব বিষয়ে সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত জাতিসংঘে আলোচনা করেন ।

ভয়েস অফ আমেরিকার সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে বাংলাদেশে যুদ্ধাপরাধের বিচার সম্পর্কিত এক প্রশ্নের জবাবে সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন যে যুদ্ধাপরাধে বিচার কবে নাগাদ সম্পন্ন হবে সে কথা এই বিচারের জন্যে প্রতিষ্ঠিত স্বাধীন ট্রাইবুনাল বলতে পারবে । তিনি বলেন যে ১৯৭৩ সালের আইনের মাধ্যমেই এই ট্রাইবুনাল গঠিত হয় । তবে এই আইনকে যুগোপযোগি করা হযেছে। তিনি বলেন যে এই ট্রাইবুনালের রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করার এমন কী জামিন পাওয়ার ও সুযোগ রয়েছে , বাংলাদেশের আইনে ; যা অন্যত্র নেই। সে দিক দিয়ে বাংলাদেশে যুদ্ধাপরাধের আইন স্বচছ ও উদার ।

তিনি স্মরণ করিয়ে দেন যে ’৭৫ এ বঙ্গবন্ধু হত্যার পর বহু আইনে পরিবর্তন এনেছে তৎকালীন সরকার কিন্তু এই আইনে কোন পরিবর্তন তারা আনেনি। তার মানে ১‌৯৭১ সালে যারা যুদ্ধাপরাধ করেছে কিংবা মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ করেছে , তাদের বিচারের বিষয়ে কোন দ্বিমত ছিল না।

XS
SM
MD
LG