অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

যুক্তরাষ্ট্রের মিসৌরি রাজ্যের হ্যানিবালে অনুষ্ঠিত হচ্ছে মার্ক টোয়েনের মৃত্যুর শতবার্ষিকী

  • কেইন ফ্যারাবো

মার্ক টোয়েনের বাড়ি

মার্ক টোয়েনের বাড়ি

আমেরিকার মহান লেখক আর্নেস্ট হেমিংওয়ে একবার বলেছিলেন, সকল আমেরিকান আধুনিক সাহিত্যের সূত্র একটি মাত্র বই, মার্ক টোয়েন বিরচিত ‘হাকেলবেরী ফিন’। মার্ক টোয়েনের বাড়ি যুক্তরাষ্ট্রের মধ্য পশ্চিমের মিসৌরী রাজ্যের ছোট্ট শহর ‘হ্যানিবালে’। মিসিসিপি নদী তীরবর্তী এই শহর, দেশ বিদেশের অগনিত পর্য্যটককে আকর্ষন করে। ২০১০ সালে মার্ক টোয়েনের ১৭৫তম জন্ম বার্ষিকী, শততম মৃত্যু বার্ষিকী এবং তাঁর অমর গ্রন্থ ‘হাকেলবেরী ফিন’ প্রকাশনার ১২৫তম বার্ষিকী উপলক্ষ্যে হ্যানিবালে আয়োজিত হয়েছে নানা অনুষ্ঠান।


মার্ক টোয়েন অবশ্য হ্যানিবালে জন্মগ্রহন করেননি অথবা বেশি দিন সেখানে থাকেনওনি। তবু হ্যানিবাল তাঁর জীবন জুড়ে। একবার তিনি বলেছিলেন ‘এই শহর আমাকে তার নাগরিক করে নিয়েছিল তবে আমি এত ছোট ছিলাম যে হ্যানিবালের কোন ক্ষতি করতে পারিনি ।’ মার্ক টোয়েন যেখানেই গিয়েছেন, যে স্থানের কথাই লিখেছেন, হ্যানিবালের কথা বার বার স্মরণ করেছেন । এই হ্যানিবালে রয়েছে মার্ক টোয়েনের ছেলেবেলার বসত বাড়ি আর মিউজিয়াম । মিউজিয়ামের কিউরেটর হেনরী সুইটস বলছিলেন ‘আমি মনে করি তিনি ছেলেবেলায় স্কুল, গীর্জা এবং ক্রীতদাস প্রথা যা কিছু দেখেছেন সেই সব অভিজ্ঞতা পরবর্তীতে তাঁর লেখাকে সমৃদ্ধ করেছে ।’


মার্ক টোয়েন, তাঁর দ্য অ্যাডভেন্চারস্ অব টম সয়ার এবং দ্য অ্যাডভেনচারস্ অব হাকেলবেরী ফিন গ্রন্থ দুটিতে যা কিছু অমর করে রেখেছেন সেগুলোর নিদর্শন সংরক্ষিত রাখা হয়েছে এই মিউজিয়ামে । যে বাড়িটিতে তিনি থেকেছেন সে বাড়ি দেখার জন্য সারা পৃথিবী থেকে পর্যটকদের আগমন ঘটে। দুহাজার ন’সালে তিন লক্ষ মানুষ হ্যানিবাল পরিদর্শন করেছে। তার মধ্যে কুড়ি শতাংশ ঐ যাদুঘর দেখেছে। অথচ অর্থনৈতিক মন্দার দরুন এই যাদুঘর রক্ষনাবেক্ষণ এবং মেরামতির জন্য অর্থের অভাব। মার্ক টোয়েন যাদুঘরের নির্বাহী পরিচালিকা সিনডি লাভেল যেমন বলছিলেন ‘মিসৌরী রাজ্যের যেসব ঝুঁকি পূর্ণ ভবন সংরক্ষণ করে রাখার জন্য তালিকাভুক্ত, তার মধ্যে এই যাদুঘর অন্যতম। এবং এই ভবন সংরক্ষণ করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তবে হ্যা এজন্য প্রচুর অর্থের প্রয়োজন। যাদুঘর চলতি ২০১০ সালের মধ্যে এক কোটি ডলার সংগ্রহ করার আশা করে। কর্তৃপক্ষ সারা পৃথিবীর অন্ততঃপক্ষে ১০ লক্ষ মার্ক টোয়েন ভক্তদের কাছ থেকে মাথা পিছু ১০ ডলার করে তোলার চেষ্টা করছে।’


ইতোমধ্যে গোটা ২০১০ সাল জুড়ে হ্যানিবাল শহর মার্ক টোয়েনের মৃত্যুর শত বার্ষিকী সেই সঙ্গে তাঁর ১৭৫ তম জন্ম বার্ষিকী এবং হাকেলবেরী ফিন গ্রন্থ প্রকাশনার ১২৫ তম বার্ষিকী পালনের জন্য চলছে নানা উদ্যোগ।

সংশ্লষ্ট

XS
SM
MD
LG