অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সায়েফ আল ইসলামের পরিচিতি


সায়েফ আল ইসলামের পরিচিতি

সায়েফ আল ইসলামের পরিচিতি

গেল আগস্ট মাস থেকে সায়েফ আল ইসলামের কোন খোঁজখবর পাওয়া যাচ্ছিল না। ন্যাশনাল ট্রানসিশনযাল কাউন্সিল এন টি সির যোদ্ধারা মোয়ামার গাদ্দাফির অবশিষ্ট বাহিনীর দিকে ধাবিত হলে তিনি নিখোঁজ হয়ে যান।

জুন মাসে হেগ শহরে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত সায়েফ আল ইসলামের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী করে তাকে ‘কার্যতঃ লিবিয়ার প্রধানমন্ত্রী’ হিসেবে উল্লেখ করে। আই সি সি তার বিরুদ্ধে মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধের অভিযোগ করে।

এর আগে আই সি সির একজন আইনবিদ বলেন তার কাছে – গাদ্দাফি, সায়েফ আল ইসলাম, এবং লিবিয়ার গোয়েন্দা বিভাগের প্রধান যে সরকার বিরোধী প্রতিবাদকারীদের ওপর ভারী অস্ত্র ও তাজা গোলাবারূদ ব্যবহারের নির্দেশ দিয়েছিলেন তার প্রত্যক্ষ প্রমান রয়েছে ।

সায়েফ আল ইসলামের বয়স ৩৯ বছর। লণ্ডন স্কুল অফ ইকনমিকস থেকে ডক্টরেড ডিগ্রী লাভ করেন । এবং তিনি ইংরেজী ভাষায় পারদর্শী। ১৯৯৭ সালে সায়েফ গাদ্দাফি ইন্টারন্যাশনাল ফাউণ্ডেশন ফর চ্যারিটি এসোসিয়েশন নামে এক দাতব্য সংস্থা প্রতিষ্ঠা করেন, যে সংস্থা ইসলামী উগ্রবাদীদের সঙ্গে জিম্মী পরিস্থিতি নিরসনে মধ্যস্থতা করেছে এবং ভূমিকম্প বিধ্বস্ত হাইতিতে শতশত টন সাহায্য সামগ্রী পাঠিয়েছে।

তবে সরকার বিরোধী আন্দোলন শুরু হওয়ার পর তিনি লিবিয়ার টেলিভিশনে এক ভাষণে- আন্দোলনের জন্য পানাসক্ত ও মাদক-সেবনকারী উপজাতি দলগুলোকে দায়ী করে বলেন তারা তাদের নিজস্ব কর্মসুচী অনুযায়ী কাজ করছে ।

XS
SM
MD
LG