অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

লিবিয়া পরিস্থিতির মূল্যায়ন করলেন জেমস ফিলিপস

  • রোকেয়া হায়দার

লিবিয়া পরিস্থিতির মূল্যায়ন করলেন জেমস ফিলিপস

লিবিয়া পরিস্থিতির মূল্যায়ন করলেন জেমস ফিলিপস

মোয়ামার গাদ্দাফির মৃত্যুর পর লিবিয়া পরস্থিতি কেমন দাঁড়াবে। অন্তর্বর্তী কর্তৃপক্ষ এন টি সি সকল পক্ষকে নিয়ে একটা সমঝোতার মাঝে গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে পারবে কিনা – এই ধরণের নানান আলোচনা শোনা যাচ্ছে।

রোকেয়া হায়দার এই বিষয়টি নিয়ে কথা বলেছেন ওয়াশিংটনে হেরিটেজ ফাউণ্ডেশনের মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ে সিনিয়ার রিসার্চ ফেলো জেমস ফিলিপসের সঙ্গে।

মোয়ামার গাদ্দাফি এখন আর নেই। তার মৃত্যুর পর, লিবিয়ায় অবশ্যই পরিবর্তন আসবে। হেরিটেজ ফাউণ্ডেশনের সিনিয়ার রিসার্চ ফেলা জেমস ফিলিপসকে প্রশ্ন করেছিলাম কি কি পরিবর্তন তারা আশা করছেন?তিনি বলেন, ‘যে সব বিরোধী দল মিলে গাদ্দাফিকে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দিল, সেই কোয়ালিশনে বিভিন্ন রাজনৈতিক মতাদর্শের লোকজন ছিল, তাদের ভিন্ন রাজনৈতিক লক্ষ্য রয়েছে। তারা গাদ্দাফির বিরোধিতা করেই একজোট হয়েছিল ।কিন্তু এখন তিনি আর নেই। তাই একটা আশংকা দেখা দিয়েছে যে তাদের মধ্যে এখন সেই মতের অমিল প্রকট হয়ে উঠবে । তাই এখন ন্যাশনাল ট্রানশিসন কাউন্সিল জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ যে তারা সবার মধ্যে একটা মতৈক্য গড়ে তুলবে । এবং ভবিষ্যতে লিবিয়ায় যে সরকার প্রতিষ্ঠা হবে তার জন্য ব্যাপক একটা প্রক্রিয়ায় তাদের সবাইকে অন্তর্ভুক্ত করা ।

গাদ্দাফির চার দশকের শাসনের পর বিশ্ব এখন লিবিয়ায় গনতন্ত্রের আশা করছে । সেখানে এই উত্তরণ প্রক্রিয়া কি হওয়া উচিত । জেমস ফিলিপস বললেন,

‘আমি মনে করি লিবিয়ার জনগনের ওপর এই ব্যবস্থা ছেড়ে দেওয়া উচিত । এবং ন্যাশনাল ট্রানসিশান কাউন্সিল বলেছে তারা একজন প্রধানমন্ত্রী নিয়োগের ব্যবস্থা শুরু করছে । যিনি মন্ত্রী সভা গঠন করবেন । এবং আশা করা যায় একটা সমঝোতা গড়ে উঠবে’।

জেমস ফিলিপসের মন্তব্য ছিল এন টি সি কি সেই পরিবর্তন সাধনে সফল হবে।

‘সম্ভবতঃ এন টি সি সম্পূর্ণভাবে লিবিয়ানদের একজোট করতে পারবে না । কিন্তু তারা এমন একটা ব্যবস্থা গড়ে তুলবে যাতে লিবিয়ায় ঐক্য প্রতিষ্ঠিত হবে এবং গাদ্দাফি পরবর্তী লিবিয়ার একটা সুবিধা আছে তা হলো তার তেল সম্পদ । সেই সম্পদই তাদের একত্র করে রাখতে পারবে । এবং যে কোন ব্যবস্থাই হোক না কেন সেখানে গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠা খুবই গুরুত্বপূর্ণ’।

যুক্তরাষ্ট্রের ভুমিকা কি হবে বলে তিনি মনে করেন ?

তিনি বলেন, এন টি সি যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি লিবিয়ার সামরিক বাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া এবং লিবিয়ার সীমান্ত সুরক্ষিত করতে সাহায্যের আহ্বান জানিয়েছে ।

XS
SM
MD
LG