অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মহাকাশ মানমন্দিরের মাধ্যমে মহাজগতের বিস্ময়কর তথ্য উদ্ঘাটন

  • জিয়াউর রহমান

মহাকাশ মানমন্দিরের মাধ্যমে মহাজগতের বিস্ময়কর তথ্য উদ্ঘাটন

মহাকাশ মানমন্দিরের মাধ্যমে মহাজগতের বিস্ময়কর তথ্য উদ্ঘাটন

অনন্ত মহাজগতের অনেক বিস্ময়কর তথ্য উদ্ঘাটন সম্ভব হয়েছে কক্ষপথে প্রধান দু’টি স্পেস অবযারভেটরী বা মহাকাশ মানমন্দিরের শক্তিশালী সন্ধানী দৃষ্টি ক্ষেপনের মাধ্যমে । এর একটি ‘হাবল্ স্পেস টেলিস্কোপ , - আরেকটি ‘চন্দ্রা এক্সরে অবযারভেটরী’।এই দু’টিই যুক্তরাষ্ট্র মহাকাশ সংস্থার মহাশূন্য অভিযানের সবচেয়ে কার্যকর ও শক্তিশালী বাহন।
যুক্তরাষ্ট্র মহাকাশ সংস্থা ১৯৯৯ সালের ২৩ জুলাই মহাকাশ শাটলযান কলাম্বিয়ার সাহায্যে ‘চন্দ্রা মানমন্দির’ কক্ষপথে উত্ক্ষেপন করে - এবং এটি শাটল্ যানে বহন করা এ যাবতকালের বৃহত্তম মহাশূন্যযান।
মহাকাশ সংস্থার বিজ্ঞানীরা আশা করছেন ‘চন্দ্রা মানমন্দির’ আমাদের সৌরমন্ডল, – এমনকি আমাদের নক্ষত্রপুঞ্জ ‘মিল্কিওয়ে’ বা ছায়াপথের বাইরে যে ব্যাপক অজানা মহাজাগতিক রহস্য রয়েছে – তার বেশ কিছু উদ্ঘাটনে সক্ষম হবে ।

XS
SM
MD
LG