অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইরানের রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত বার্তা মাধ্যমে বলা আচ্ছে শুক্রবার দেশের সংসদীয় নির্বাচনে বিপুল সংখ্যক মানুষ ভোট দিতে গেছে। এতে প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আহমেদিনিজাদের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট রক্ষনশীল প্রতিদ্বন্দ্বীদের উপর ইরানের শীর্ষ ধর্মীয় নেতা আয়াতোল্লাহ আলী খামেনির নিয়ন্ত্রন আরও জোরদার করবে।আধা সরকারি ফার্স সংবাদ সংস্থা বলেছে ইরানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয় ভোট কেন্দ্রগুলো

আরও দু ঘন্টা খোলা রাখবে কারণ ভোট দেওয়ার জন্য ভোট কেন্দ্রগুলোর সামনে দীর্ঘ লাইন রয়েছে।

২৯০ সদস্যের সংসদে আসন পাওয়ার জন্য প্রায় ৩৪০০ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। আজ শুক্রবারের নির্বাচনে চার কোটি আশি লক্ষ ইরানী ভোট দিতে পারবেন।

২০০৯ সালের বিতর্কিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পর, শুক্রবারের নির্বাচন সেই দেশে প্রথম নির্বাচন। ইরানের প্রধান বিরোধী এবং সংস্কারবাদী গ্রুপগুলো আজকের নির্বাচন বয়কট করছে। মি আহমেদিনিজাদ এর পুনর্নির্বাচনের বিরুদ্ধে সংস্কারবাদীরা ব্যাপক প্রতিবাদ বিক্ষোভ শুরু করার পর থেকে, ইরানের রক্ষনশীল সরকার এবং ধর্মীয় নেতারা সংস্কারবাদী আন্দোলনের বিরুদ্ধে দমন অভিযান চালিয়েছে।

ইরানের শীর্ষ ধর্মীয় নেতা আয়াতোল্লাহ আলী খামেনি সবাইকে ভোট দেওয়ার জন্য আবেদন জানিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন বিপুল সংখ্যায় ভোট দিলে তা ইরানের শত্রুদের অগ্রাহ্য করা হবে। তিনি পশ্চিমী শক্তিগুলোরই উল্লেখ করছিলেন যারা ইরানের অর্থনীতির বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপের অভিযান চালাচ্ছে।

XS
SM
MD
LG