অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আশরাফ বললেন গুজব, মিডিয়ার সৃষ্টি


স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর পদ থেকে সৈয়দ আশরাফকে অব্যাহতি দেয়ার কথা মিডিয়ায় ছড়ালেও সরকার পক্ষ থেকে এই বক্তব্যের কোন নিশ্চয়তা পাওয়া যায়নি

স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর পদ থেকে সৈয়দ আশরাফকে অব্যাহতি দেয়ার কথা মিডিয়ায় ছড়ালেও সরকার পক্ষ থেকে এই বক্তব্যের কোন নিশ্চয়তা পাওয়া যায়নি

শেষ পর্যন্ত গুঞ্জনই থেকে গেল আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও স্থানীয় সরকারমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের মন্ত্রিসভা থেকে অব্যাহতির খবর। মঙ্গলবার দিনভর মিডিয়ায় প্রধান খবর ছিল এটি। এর কিছু বাস্তবতা যে ছিল না তা নয়। দিনের শুরুতে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের একটি বৈঠক ছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৈঠকে সভাপতিত্ব করছিলেন।

স্থানীয় সরকারমন্ত্রী হিসেবে সৈয়দ আশরাফের বৈঠকে উপস্থিত থাকার কথা। কারণ এজেন্ডায় তাঁর মন্ত্রণালয়ের প্রায় ৬ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদনের সুপারিশ ছিল। মন্ত্রী অনুপস্থিত, প্রতিমন্ত্রীও নেই। এই অবস্থায় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত প্রস্তাব করেন, যেহেতু মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী উপস্থিত নেই সে কারণে আজকের এজেন্ডা থেকে স্থানীয় সরকার প্রকল্প বাদ দেয়া হোক। তখন প্রধানমন্ত্রী বলেন, এজেন্ডা বাদ দেয়ার দরকার নেই। এ সময় উপস্থিত অনেকেই বলেন, স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তো প্রায় বৈঠকেই উপস্থিত থাকেন না।

প্রধানমন্ত্রী তখন তাঁকে বাদ দেয়ার কথা বলেন। মন্ত্রিপরিষদ সচিবকেও সামারি তৈরি করার নির্দেশ দেন। বৈঠক থেকে খবরটি মিডিয়ায় চলে আসে। বিভিন্ন টেলিভিশনের স্ক্রলেও স্থান পায় অব্যাহতির খবর। অনলাইন মিডিয়া লুফে নেয়। সাংবাদিকরা ভিড় জমান মন্ত্রিপরিষদ সচিবের দপ্তরে। সামারিও পাঠানো হয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে। কিন্তু এ সময়ের মধ্যেই সিদ্ধান্ত পরিবর্তন হয়ে যায়। এক পর্যায়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, অব্যাহতির খবর সঠিক নয়।

যাকে নিয়ে এতকিছু তাঁর কাছ থেকে কোন বক্তব্যই আসেনি তখন। খবর রয়েছে, তখন তিনি কিশোরগঞ্জের পথে। সেখানে এক ইফতার পার্টিতে যোগ দেয়ার জন্য ঢাকা ছেড়েছেন। সকালে তিনি কিছু সময় সংসদেও ছিলেন। সন্ধ্যায় তিনি সাংবাদিকদের বলেন সবই গুজব। মিডিয়ার সৃষ্টি।

XS
SM
MD
LG