অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশের সবচেয়ে প্রাচীন রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগের দুইদিনব্যাপী জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে শনিবার সকাল থেকে।

অনুষ্ঠানস্থল জাতীয় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে নৌকার আদলে গড়ে তোলা মঞ্চ, কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণসহ সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করার কথা জানানো হয়েছে। সারাদেশ থেকে প্রতিনিধি, নেতাকর্মী, ১০টি দেশের ৫৪ জন অতিথিসহ দেশীয় অতিথিরাও এতে অংশ নেবেন।
বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে আওয়ামী লীগের এই কাউন্সিল বেশ গুরুত্বপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে। এর সম্মেলনের রাজনৈতিক গুরুত্ব সম্পর্কে বিশ্লেষণ করেছেন প্রবীণ সাংবাদিক আবেদ খান।
রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মধ্যে এমন ধারণা রয়েছে যে, দলের অভ্যন্তরে গণতন্ত্রের চর্চা না থাকায় বাংলাদেশের প্রধান দুই দলের সম্মেলন শুধুমাত্র আনুষ্ঠানিকতা মাত্র। এমনটিই বলেছেন প্রবীন সাংবাদিক ও বিশ্লেষক হায়দার আকবর খান রনো।
যুক্তরাষ্ট্রের কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক প্রফেসর ড. রওনক জাহান মনে করেন, এসব সম্মেলনে দলের মধ্যকার কার্যকর কোনো আলাপ-আলোচনাই হয় না।
অনেক বিশ্লেষকই অবশ্য মনে করেন, আগামীদিনের রাজনৈতিক গতিধারা নির্ধারণে আওয়ামী লীগের এই জাতীয় সম্মেলন নিঃসন্দেহে গুরুত্বপূর্ণ। ঢাকা থেকে আমীর খসরু।

XS
SM
MD
LG