অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইন্টারনেটও নজরদারি করতে চাচ্ছে সরকার। এজন্য ইন্টারনেট প্রটোকল ব্যবস্থা (আইপি অ্যাড্রেস) কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করার উদ্যোগ নিয়েছে। এরই অংশ হিসেবে আইপি অ্যাড্রেস বিতরণ, তদারকি ও পর্যালোচনার জন্য আলাদা একটি সংস্থাও গঠন করা হচ্ছে।

ইন্টারনেটের মাধ্যমে কোনো যন্ত্রকে যুক্ত করতে প্রতিটি যন্ত্রেরই একটা পরিচয় নম্বর থাকে। এ নম্বরটিই হচ্ছে ইন্টারনেট প্রটোকল, যা সংক্ষেপে আইপি নামে পরিচিত। এ প্রটোকলের মাধ্যমে ব্যবহৃত ডিভাইসটি স্বতন্ত্রভাবে চেনা যায়।

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) সর্বশেষ হিসাব অনুযায়ী বর্তমানে দেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৫ কোটি ৪৬ লাখ।

সরকার মনে করে এ উদ্যোগ কার্যকর করা হলে ইন্টারনেটের মাধ্যমে যে কোনো অপরাধ করলে দ্রুত তা ধরা সম্ভব হবে। বিটিআরসি জানিয়েছে, ৫ কোটি গ্রাহকের জন্য মাত্র ৯ লাখ ২৪ হাজার আইপি অ্যাড্রেস বরাদ্দ রয়েছে। তাই একটি আইপি অ্যাড্রেস হাজারেরও ওপরে গ্রাহক ব্যবহার করছেন। এতে সাইবার অপরাধী শনাক্তে জটিলতায় পড়ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। ঢাকা থেকে মতিউর রহমান চৌধুরী।

XS
SM
MD
LG