অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বলপ্রয়োগ ও ন্যায়বিচারহীনতার কারণে বাংলাদেশে উগ্রপন্থীদের উত্থান ঘটছে-ব্রাসেলস ক্রাইসিস গ্রুপ


বলপ্রয়োগ ও ন্যায়বিচারহীনতার কারণে বাংলাদেশে উগ্রপন্থীদের উত্থান ঘটছে:

ব্রাসেলস ভিত্তিক ইন্টারন্যাশনাল ক্রাইসিস গ্রুপ মনে করে, বলপ্রয়োগ ও ন্যায়বিচারহীনতার কারণে বাংলাদেশে চরমপন্থী সংগঠনগুলোর উত্থান ঘটছে। আর ক্ষমতাসীন সরকারই এ সুযোগ তৈরি করে দিচ্ছে। সংস্থাটি আরও বলেছে, সরকারের বুঝা উচিতÑ এ পথ থেকে সরে না এলে সহিংস চরমপন্থা নিয়ন্ত্রণ কিংবা রাজনৈতিক হুমকির মোকাবিলা উভয়ক্ষেত্রেই তারা ব্যর্থ হতে পারে। সোমবার প্রকাশিত পলিটিক্যাল কনফ্লিক্ট, এক্সটিমিজম অ্যান্ড ক্রিমিনাল জাস্টিস ইন বাংলাদেশশীর্ষক প্রতিবেদনে বলা হয়, বিএনপির সঙ্গে সরকারের শত্রুতা নতুন উচ্চতায় পৌঁছেছে। একই পাল্লায় নির্যাতনও বেড়েছে। গভীরভাবে রাজনীতিকৃত ও অকার্যকর বিচার কাঠামো আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার বদলে খর্ব করছে। প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, বাংলাদেশে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় বিদ্যমান চ্যালেঞ্জগুলো মূলত সরকার ও বিরোধী দলগুলোর তীব্র শত্রুতার মধ্যে নিহিত। এছাড়া সরকারের শত্রুদের টার্গেট করার কাজ দেয়া হয়েছে পুলিশকে। কেবলমাত্র ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরে বিরোধীদলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, দুই যুগ্ম মহাসচিব ও স্থায়ী কমিটির কয়েকজন সদস্যসহ প্রায় ২৪ হাজার বিএনপি নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে ৫০০টি মামলায় অভিযোগ গঠন করা হয়েছে। ক্রাইসিস গ্রুপ আরও বলেছে, প্রশ্রয়প্রবণ আইনী পরিবেশ চরমপন্থী সংগঠনগুলোকে পুনর্গঠিত করার সুযোগ করে দিচ্ছে। তারা সেক্যুলার ব্লগার, বিদেশী হত্যা ও ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা চালিয়ে উল্লাস করছে। প্রতিবেদনের উপসংহারে বলা হয়, যতদিন পর্যন্ত দেশে বিরোধ ন্যায়সঙ্গতভাবে মীমাংসায় স্বাধীন কোর্ট সিস্টেম থাকবে না ততদিন নিজেদের দাবি রাজপথে নিয়ে যাবে দলগুলো। ঢাকা থেকে মতিউর রহমান চৌধুরীর রিপোর্ট:

XS
SM
MD
LG