অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

জেএমবি'র নেতৃত্ব পরিবর্তন হয়েছে ৫ বার, এখন ভেঙ্গে তিন ভাগ


বাংলাদেশে জঙ্গীবাদের ক্রমবর্ধমান বিস্তারে উদ্বিগ্ন এখন সবাই। গুলশান এবং শোলাকিয়ায় হামলার পরে নড়ে-চড়ে বসেছে আইন শৃংখলা রক্ষাবাহিনী।

বাংলাদেশে জঙ্গীবাদের বিস্তারে সময় নিয়েছে এক যুগের মতো। ২০০৫ সালের এই দিনে অর্থাৎ ১৭ আগস্ট তৎকালীন জেএমবি দেশের ৬৩টি জেলার ৫ শতাধিক গুরুত্বপূর্ণস্থানে একযোগে বোমা ফাটিয়ে জঙ্গীদের কার্যক্রমের উপস্থিতির প্রথম প্রকাশ ঘটায়। ২০০৫ সালে নিষিদ্ধ হয় জেএমবি এবং ২০০৭ সালে ফাঁসি দেয়া হয় জেএমবি নেতা শায়খ রহমান এবং বাংলা ভাইয়ের।

জেএমবি কিছুকাল চুপচাপ এবং কিছুকাল নিষ্ক্রিয় থাকার পরে গুলশান ও শোলাকিয়ায় হামলার মধ্যদিয়ে বড় আকারে তাদের উপস্থিতির জানান দেয়। এই ১১ বছরে জেএমবি'র নেতৃত্ব পরিবর্তন হয়েছে ৫ বার। ভেঙ্গেছে কয়েকবার। এখন তিনভাগে বিভক্ত।

একাংশ আইএস-এর সাথে যোগাযোগের কথা বললেও, আইন-শৃংখলা রক্ষাবাহিনীর মতে, তারা নব্য জেএমবি নামে কাজ করছে। বিশ্লেষকদের মতে এরা অনেক বেশি রেডিক্যাল এবং ভয়ংকর। তবে পুলিশের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম বলেছেন, তারা বেশি দূরে এগোতে পারবে না।
পুলিশ আনসার আল ইসলামের নেতা সেলিম ওরফে ইকবালকে ধরিয়ে দেয়ার জন্য ৫ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছে।

এদিকে, সেপ্টেম্বরে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের ঢাকা সফরের নিরাপত্তাগত বিষয় নিয়ে আলোচনার জন্য ইংল্যান্ডের একটি নিরাপত্তা দল এখন ঢাকায় রয়েছে। ঢাকা থেকে আমীর খসরু।

XS
SM
MD
LG