অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মানবতাবিরোধী অপরাধে মীর কাশেম আলীর মৃত্যুদণ্ড বহাল


একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য মীর কাসেম আলীকে দেয়া আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের মৃত্যুদন্ডের রায় বহাল রেখেছে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার নেতৃত্বে গঠিত আপিল বিভাগের পাঁচ সদস্যের একটি বেঞ্চ মঙ্গলবার সকালে দন্ডপ্রাপ্ত আসামির আপিল আংশিক মঞ্জুর করে মৃত্যুদন্ডের সাজা বহাল রেখে চূড়ান্ত রায় ঘোষণা করেন। আইনানুযায়ী এখন শুধু রিভিউ আবেদন করার সুযোগ পাবেন জামায়াতের এ নেতা।

রিভিউ না করলে এবং প্রেসিডেন্টের কাছে প্রাণ ভিক্ষার আবেদন না করলে তার সাজা কার্যকর করতে আর কোন আইনগত বাধা থাকবে না।

মীর কাসেমের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগের ঘোষিত রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছে সরকারি দল আওয়ামী লীগ। একই সঙ্গে আইনমন্ত্রী, এ্যাটর্নি জেনারেল, রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী, গণজাগরণ মঞ্চসহ মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক বিভিন্ন সংগঠন ও ব্যাক্তিত্বরাও রায়কে স্বাগত জানিয়েছেন।

এ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, রায়ের প্রতিক্রিয়ায় বুধবার সকাল সন্ধ্যা হরতাল ডেকেছে জামায়াতে ইসলামী। রায়ের পর মীর কাসেমের আইনজীবী ও পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, পূর্ণাঙ্গ রায় দেখে তারা এ রায়ের বিরুদ্ধে রিভিউ করবেন।
ওদিকে খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হককে তলব করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। মীর কাসেম আলীর মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলার রায় নিয়ে বেফাঁস মন্তব্যের জেরে তলব করা হয়েছে তাদের। দুই মন্ত্রীকে আগামী ১৫ই মার্চ সকাল ৯টায় হাজির হতে বলা হয়েছে।

দুই মন্ত্রীর বক্তব্যকে চরম আদালত অবমাননাকর বলে বর্ণনা করেছেন আপিল বিভাগ। আপিল বিভাগ বলেছেন, দুই মন্ত্রীর বক্তব্য বিচার বিভাগের ওপর হস্তক্ষেপ। তারা সুপ্রিম কোর্টের মর্যাদা এবং কর্তৃত্বকে হেয় করেছেন। ঢাকা থেকে মতিউর রহমান চৌধুরী।

XS
SM
MD
LG