অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

দুর্বৃত্তদের হামলায় নিহত হলেন আরও একজন ব্লগার


দুর্বৃত্তদের হামলায় নিহত হলেন আরও একজন ব্লগারগার। শুক্রবার দুপুরে নীলাদ্রি চট্টোপাধ্যায় নামের ৪০ বছর বয়স্ক ওই ব্লগারকে খুন করে দুর্বৃত্তরা। তিনি নিলয় নীল নামে নিয়মিত ফেসবুকে লেখালেখি করতেন। গণজাগরণ মঞ্চেরও সক্রিয় সদস্য ছিলেন তিনি। পুলিশ স্থানীয়দের ভাষ্য মোতাবেক বলছে, দুপুর পৌনে ২টার দিকে ৫ জন দুর্বৃত্তের একটি দল তার বাসায় ঢুকে পড়ে এবং তাদের ধারালো অস্ত্রের এলোপাতাড়ি আঘাতে ঘটনাস্থলেই তিনি নিহত হন। নিলয় নীল তার স্ত্রী এবং বোনকে নিয়ে ওই বাসায় থাকতেন। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এই হত্যাকান্ড নিয়ে এ বছর ৪ জন ব্লগারকে হত্যা করা হয় এবং ২০১৩ সালে আরেকজন ব্লগার নিহত হন। তবে এই পর্যন্ত দোষীদের কারও বিচার হয়নি। এদিকে দেশী-বিদেশী বিভিন্ন সংস্থা এই হত্যাকান্ডের তীব্র নিন্দা এবং ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বলেছে, বাকস্বাধীনতা ও মুক্ত মতামতকে বন্ধ করতে ভীতির পরিবেশ সৃষ্টির লক্ষ্যে এই ঘটনা ঘটানো হচ্ছে।

ঢাকা থেকে আমির খসরু জানিয়েছেন যে Al Qaida in the Indian Sub-continent বা AQIS এর শাখা আনসার আল ইসলাম বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো বিবৃতিতে এই হত্যাকান্ডের দায় স্বীকার করেছে।

ব্লগার নিলয় নীলসহ চলতি বছরই দুর্বৃত্তের হাতে নিহত হলেন ৪ জন ব্লগার। ২৬ ফেব্রুয়ারি ব্লগার ও লেখক অভিজিত রায়, ৩০ এপ্রিল ওয়াশিকুর রহমান বাবু এবং মে মাসে সিলেটে অনন্ত বিজয় দাস নিহত হন। আর ২০১৩ সালে হত্যা করা হয় আহমেদ রাজীব হায়দারকে। এসব হত্যাকান্ডের কোনোটিই কোনো সুষ্ঠু তদন্ত বা দোষীদের খুজে বের করে শাস্তির বিধান করা হয়নি। নিলয় নীল তারা লেখালেখির কারণে নিরাপত্তাহীনতায় ভোগার কথা এবং তাকে অনুসরণ করা হচ্ছে বলে মাস তিনেক আগে পুলিশকে জানিয়েছিলেন, আর সাধারণ ডায়রি বা জিডি করতে চেয়েছিলেন। পুলিশ কোনো ব্যবস্থা না নিয়ে তাকে দ্রুত বিদেশ চলে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছিল। এ কথা তার বন্ধু এবং স্বজনরা জানেন এবং তিনি ফেসবুকেও এই সম্পর্কে লেখেছিলেন। এই সম্পর্কে ভয়েস অব আমেরিকাকে জানিয়েছেন নিলয় নীলের পরিচিতজন ব্লগার ভাস্কর আবেদীন।
এদিকে গণজাগরণ মঞ্চের নেতা এবং ব্লগার বাপ্পাদীপ্ত বসু বলেন, পুলিশসহ কর্তৃপক্ষের নীরবতা দুঃখজনক এবং সামগ্রিকভাবে একটি উদ্বেগের পরিবেশ বর্তমানে বিরাজমান।
গণজাগরণ মঞ্চ এবং অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালসহ দেশী-বিদেশী বিভিন্ন সংস্থা নিলয় নীল হত্যাকন্ডের গভীর দুঃখ প্রকাশ করেছে। অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বলেছে, বাংলাদেশ সরকারকে এমন জোরালো বার্তা দিতে হবে যে,ভিন্ন মত প্রকাশকারীদের কণ্ঠরোধ করার লক্ষ্যে হত্যাকান্ডকে বরদাশত করা হবে না। এ ধরনের হত্যাকান্ড বন্ধ করতেই হবে বলে বলছে অ্যামনেস্টি।... ঢাকা থেকে আমীর খসরু

XS
SM
MD
LG