অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

লন্ডন-মস্কো সম্পর্ক উন্নত ও স্বাভাবিক করতে চান বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে। তাই তিনি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্ল্যাডিমির পুতিনের সঙ্গে বুধবার টেলিফোনে কথা বলেছেন। ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিট থেকে একজন মুখপাত্র জানান, ইয়েস- তাদের মধ্যে কথা হয়েছে। তেরেসা মে নিজেই ফোন করে পুতিনকে বলেছেন, নানা কারণে দুই দেশের সম্পর্কে টানাপড়েন চলছে। সময় নষ্ট না করে আসুন সম্পর্ক স্বাভাবিক পর্যায়ে নিয়ে যাই। পুতিন এতে সায় দিয়েছেন।
দু’দেশের সম্পর্কের দুরত্ব তৈরি হয় যখন ইউক্রেনে রাশিয়ার কর্মকান্ডের জবাবে দেশটির বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপের প্রক্রিয়ায় অগ্রণী ভুমিকায় ছিল বৃটেন। সাবেক বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন রাশিয়ার সাবেক গুপ্তচর ও ক্রেমলিনের সমালোচক আলেকজান্ডার লিতভিনেঙ্কোর হত্যাকারীদের বিচারের মুখোমুখি করতে প্রচেষ্টা চালান। এতে করে দু’দেশের সম্পর্ক আরও তিক্ত হয়।
তেরেসা মে-এর পররাষ্ট্র নীতিতে অন্যতম উদ্বেগ হলো, রাশিয়ার সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের বিষয়টি। মে হয়তো তার পূর্বসুরি ক্যামেরনের চাইতে ভিন্ন কৌশল অবলম্বন করবেন। আগামী মাসে চীনে অনুষ্ঠেয় বিশ্ব নেতাদের জি-টোয়েন্টি সম্মেলনে সরাসরি সাক্ষাতের বিষয়ে তেরেসা মে ও পুতিন সম্মত হয়েছেন। ডাউনিং স্ট্রিট এক সতর্ক বিবৃতিতে বলেছে, অনেক ইস্যুতে দু’দেশের মধ্যে মতপার্থক্য থাকলেও দুই নেতা সন্ত্রাসবাদ দমনে একমত হয়েছেন।

লন্ডন থেকে মতিউর রহমান চৌধুরীর রিপোর্ট।

XS
SM
MD
LG