অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বৃটেনে নিরাপত্তা ঝুঁকির কথা জানালেন এম আই ফাইভ প্রধান


FILE - An analyst points to a screen at Government Communications Headquarters (GCHQ), Britain's electronic intelligence service, in London, March, 14, 2014.

FILE - An analyst points to a screen at Government Communications Headquarters (GCHQ), Britain's electronic intelligence service, in London, March, 14, 2014.

বৃটেন বড় ধরনের নিরাপত্তা ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। একদিকে রাশিয়ার অব্যাহত নিরাপত্তা হুমকির জাল, অন্যদিকে জিহাদীদের একের পর এক জঙ্গি হামলার পরিকল্পনা।বৃটিশ গোয়েন্দা প্রধান, এমআইফাইভের ডিরেক্টর জেনারেল অ্যান্ড্রু পার্কার নিজেই এ তথ্য জানালেন। একশ’ সাত বছরের ইতিহাসে এই প্রথম কোন স্পাই প্রধান সংবাদপত্রে সাক্ষাৎকার দিয়ে নিরাপত্তা নিয়ে প্রকাশ্যে কথা বললেন। নয় বছর যাবৎ তিনি এ দায়িত্বে রয়েছেন। বৃটিশ দৈনিক গার্ডিয়ানকে তিনি বলেন, আগে রাশিয়ার গোপন হুমকি ছিল। এখন অনেকটাই প্রকাশ্য। তার মতে, বৃটেনের স্থায়িত্বের জন্য রাশিয়া রীতিমতো হুমকি। তারা প্রতিরক্ষা, অর্থনীতি, সরকার ও পররাষ্ট্র নীতির ওপর নজরদারি করছে। তাদের নেটওয়ার্ক এতোটাই শক্ত যে, অব্যাহত মনিটরিংয়ের পরেও সমূলে বিনষ্ট করা যাচ্ছে না। শুধু বৃটেন নয়, গোটা ইউরোপের জন্যই রাশিয়া এই মুহুর্তে হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে। ক্রাইমিয়া দখলের পর রাশিয়ার সঙ্গে পশ্চিমা দুনিয়ার সম্পর্কের অবনতি ঘটেছে। বৃটিশ নিরাপত্তা নিয়ে ভয়ঙ্কর তথ্য দেন অ্যান্ড্রু পার্কার। তিনি জানান, গত তিন বছরে অন্তত ১২টি জঙ্গি হামলা প্রতিহত করা সম্ভব হয়েছে। যারা কি-না ২০১৫ সালের প্যারিস হামলার মতো লন্ডনেও হামলা চালাতে চেয়েছিল। তিনি জানান, পুলিশের কাছে তথ্য রয়েছে, প্রায় আটশ’ বৈধ অস্ত্রের কোন হদিস নেই। দেশে বেড়ে ওঠা জঙ্গিরা তৎপর রয়েছে। প্রায় তিন হাজার জঙ্গি যারা সিরিয়া, ইরাক ও আফগানিস্তানে যুদ্ধ করতে গিয়েছিল।
লন্ডন থেকে মতিউর রহমান চৌধুরীর রিপোর্ট।

XS
SM
MD
LG