অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক


ব্রিটেনের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মার্গারেট থ্যাচার ৮৭ বছর বয়সে , স্ট্রোকে অক্রান্ত হয়ে শেষ নিঃশআস ত্যাগ করেছেন। পারিবারিক মুখপাত্র লর্ড টিম বেল বলছেন যে ব্রিটেনের এক মাত্র মহিলা প্রধানমন্ত্রী আজ স্থানীয় সময়ে সকাল বেলা মারা যান।

থ্যাচার ছিলেন একজন কঠোর ও স্পষ্টবাদী নারী যিনি তাঁর রক্ষণশীল দলকে ১৯৭৯ সাল থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত নির্বাচনে বিজয়ী করে একটানা প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন। ১৯ শতকের গোড়ার সময়কার পর থেকে এই প্রথম কোন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী এত দীর্ঘ সময়ে ক্ষমতায় ছিলেন ।

তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন বলেন যে তাঁর দেশ একজন মহান নেত্রী , একজন মহান প্রধানমন্ত্রী এবং একজন মহান ব্রিটিশকে হারালো। তিনি ফ্রান্স ও স্পেনে তাঁর সফর সংক্ষিপ্ত করেন ।বাকিংহ্যাম প্রাসাদ থেকে জানানো হয় যে রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথ , তার মৃত্যু সংবাদে ব্যথিত হয়েছেন। লৌহ মানবী হিসেবে পরিচিত , মিসেস থ্যাচার একজন কট্টর রক্ষনশীল ছিলেন যিনি ব্রিটিশ ইউনিয়নের শক্তি খর্ব করেন , অনেকগুলো সরকারীভর্তুকি বাতিল করেন এবং ব্যক্তি মালিকানাধীন উদ্যোগকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা দেন। ১৯৮২ সালে ফকল্যান্ড দ্বীপপুঞ্জ নিয়ে তিনি আর্জেন্টিনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছেন । এ প্রসঙ্গে মিসেস থ্যাচার তখন বলেছিলেন সকলেই জানে যে আমরা দখলদারদের সহ্য করবো না। সুতরাং আমরা ফকল্যান্ডস গেছি। এ প্রথম বিশ্বযুদ্ধের পর দখলদার বাহিনীকে আমরা পরাজিত করেছি।


মিসেস থ্যাইউরোপের সঙ্গে সম্পৃক্ত হবার কঠোর বিরোধীতা করেছেন এবং যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট রনাল্ড রেগানের সঙ্গে বিশেষ ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে তুলেছিলেন যাতে অকস্মাৎ সোভিয়েট কমিউনিজম এর পতন সহজ হয়েছিল।
XS
SM
MD
LG