অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বিশ্বকাপের খেলার পাশাপাশি আর কি ঘটছে, ব্রাজিল দেশটিতে

  • রোকেয়া হায়দার

বিশ্বকাপের খেলার ফলাফল অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু পাশাপাশি আর কি ঘটছে, ব্রাজিল দেশটি কেমন? কারা যাচ্ছেন খেলা দেখতে, দোকানীরা বিশ্বকাপের কোন ধরণের পসরা নিয়ে এসেছেন এবারের আসরে?

আসলে বরাবরের মত খেলার সঙ্গে বাড়তি থাকে প্রচুর কেনাকাটা। ঘরে কিছু স্মৃতি নিয়ে ফিরতে হবে যে। খালি হাতে তো আর ফেরা হয়না। তাই স্যুভেনীর বা উপহার সামগ্রীর মেলা বসেছে সব ভেন্যুতেই।

কোপাকাবানা সৈকতের ধারে পর্যটকদের জন্য আকর্ষণীয় টুকিটাকি রঙবেরঙের নানান জিনিষপত্র – চাবির রিং, চুড়ি, হাতের ব্যাণ্ড, হুইসল, টুপি, জার্সি, চায়ের মগ, কত কি!

সরকার ধারণা করছেন বিশ্বকাপের বদৌলতে বিদেশী অতিথিরা ৩শো কোটি ডলারের মত ব্যয় করবেন এইসব টুকিটাকি জিনিষপত্র কিনে। নাচগানে মেতেছে ব্রাজিল ---- রঙ বেরঙের পন্যসামগ্রীর ছড়াছড়ি।

সেখানকার এক কোনে ছোট্ট এক ষ্টলের মালিক মার্কাস ভিয়েরা। সে জানায় প্রচুর বিক্রি হচ্ছে তার ষ্টলে। খুব ভালো ব্যাবসা হচ্ছে। এ্যাতো বিক্রি হচ্ছে যে চাহিদার তুলনায় তার কাছে পন্য কম।

কোপাকাবানা বীচের ফিফা পরিচালিত দোকানের সামনে প্রচন্ড ভীড়। খাটি জার্সিসহ নানা পন্য পাওয়া যাচ্ছে সেখানে। সবকিছুতেই রয়েছে বিশ্বকাপের লোগো।

আদি ফিলিপভিক নামের এক পর্যটক বললেন কিছুতো কিনতে হবে। দেশে ফিরলে সবাই তাকিয়ে থাকবে কার জন্য তি এনেছি তা দেখার জন্য।

জাপানের হিকো হানাদা বললেন এটা একটা স্মরণীয় ঘটনা। আমি এমন কিছু কিনতে চাই যা সারা জীবন ব্রাজিলে বিশ্বকাপ ফুটবলের স্মৃতি মনে করিয়ে দেবে।

শুধু পর্যটকরাই নন, বিশ্বকাপ ফুটবলের সেইসব স্যুভেনির পাল্লা দিয়ে কিনছেন স্থানীয়রাও।
XS
SM
MD
LG