অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বিশ্বায়নের পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশ-চীন সম্পর্কের নতুন দিক

  • আনিস আহমেদ

সফররত চীনের ভাইস প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং বলেছেন,তাঁর সরকার বাংলাদেশের অগ্রগতি ত্বরান্বিত করতে কাঙ্খিত উন্নয়ন লক্ষ্য অর্জনে সবধরণের সমর্থন ও সহযোগিতা দেবে।

বাংলাদেশের প্রাইম মিনিস্টার শেখ হাসিনার সাথে চীনের ভাইস প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং

বাংলাদেশের প্রাইম মিনিস্টার শেখ হাসিনার সাথে চীনের ভাইস প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং

মঙ্গলবার বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের সঙ্গে সাক্ষাৎকালে জিনপিং বলেন,বাংলাদেশ অবকাঠামো, কৃষি,শিক্ষা ও স্বাস্থ্যখাতে ইতিবাচক সাফল্য অর্জন করেছে এবং আমরা এসব খাতে আমাদের সহযোগিতা আরো বৃদ্ধি করতে আগ্রহী।

বঙ্গভবনে চীনের ভাইস প্রেসিডেন্টকে স্বাগত জানিয়ে রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশ সফরের জন্য জিনপিংয়ের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করে আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে,এই সফরে দু‘দেশের মধ্যে বিদ্যমান চমৎকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরো জোরদার হবে।

রাষ্ট্রপতি স্বাধীনতার পর থেকে বাংলাদেশের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পে অব্যাহত সমর্থনের জন্য চীনের ভাইস প্রেসিডেন্টকে ধন্যবাদ জানান।

এ দিকে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক সহযোগিতা সংক্রান্ত এক চুক্তির অধীনে বেজিংয়ের কাছ থেকে ৪০ কোটি ইউয়ান অনুদান পাবে। বাংলাদেশ ও চীন এ ব্যাপারে সোমবার একটি চুক্তি স্বাক্ষর করে। অন্যান্য আর্থ-বানিজ্যিক বিষয়েও দু দেশের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

বাংলাদেশ-চীন সম্পর্ক, ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্কে কি প্রভাব ফেলতে পারে, সে সম্পর্কে ভয়েস অফ আমেরিকার আনিস আহমেদ কথা বলেছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক ইমতিয়াজ আহমেদের সঙ্গে। ইমতিয়াজ আহমেদ বলছেন যে এই বিশ্বায়ন সম্পর্কের নতুন দিক উন্মোচন তুলে ধরছে।

XS
SM
MD
LG