অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন তাঁর আঞ্চলিক সফরের তৃতিয় পর্যায়ে বেযিং রয়েছেন এখন , যে সফরের লক্ষ অংশত: চীন ও তার প্রতিবেশিদেরকে , দক্ষিন চীন সাগরের অঞ্চলগত বিরোধ নিস্পত্তির একটা পদ্ধতির ব্যাপারে একমত হওয়ার অনুরোধ জানানো ।
ক্লিনটন চাইছেন –বেযিং , দক্ষিন এশিয় দেশসমুহের সংস্থা আসিয়ানের সঙ্গে মিলে কাজ করুক বিরোধ ব্যবস্থাপনার একটা আচরণ বিধি প্রনয়নের কাজে যাতে সম্পদ সমৃদ্ধ অঞ্চলটিতে লাগাতার ক্ষোভ-বিরোধ চারিয়ে ওঠা বন্ধ হতে পারে । বেযিং দক্ষিন চীন সাগরের প্রায় গোটাটাই তার নিজের বলে দাবী করে এবং এ অবধি ঐরকম কোনো আচরণ বিধিতে সাক্ষর দানে অসম্মতি জানিয়ে এসেছে । চীন চায় , আর যারা প্রতিদ্বন্দী হয়ে দাবীদাওয়ায় সোচ্চার হচ্ছে তাদের সঙ্গে পৃথক পৃথকভাবে নিস্পত্তি করতে । এই প্রতিদ্বন্দীদের মধ্যে রয়েছে তাইওয়ান , ফিলিপাইন্স , ভিয়েতনাম , মালয়েশিয়া এবং ব্রুনাই ।
মঙ্গলবার চীনের উদ্দেশে ইন্দোনেশিয়া থেকে রওনা হবার আগে ক্লিনটন বলেন – সাগরের উত্তাল তরঙ্গমালাকে শান্ত করতে দক্ষিন পুর্ব এশিয়ার দেশ সমুহকে এককাট্রা হয়ে কাজ করতে হবে । জাকার্তায় , ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট সূসিলো বামবাং ইয়োধোইয়োনো এবং আসিয়ান মহাসচীব সূরীন পিটসূয়ানের সঙ্গে কথাবার্তার পর ক্লিনটন এ মন্তব্য করেন ।
ক্লিনটনের সঙ্গে চীনের পদস্থ নেতৃবৃন্দের কথাবার্তা হবে দু’দিন ।
XS
SM
MD
LG