অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ব্লগার-লেখক-প্রকাশক হত্যাকারীদের বিচার দাবী করেছেন প্রবাসী লেখকরা


শনিবার বাংলাদেশে লেখক ও প্রকাশকদের ওপর আক্রমনের নিন্দা জানিয়ে জড়িতদের গ্রেফতার ও বিচার দাবী করেছে Committee to Protect Journalists CPJ। নিউইয়র্কের বাংলাদেশি লেখক ব্লগাররাও এর প্রতিবাদ জানিয়েছেন। CPJ রিপোর্ট ও নিউইয়র্কের লেখকদের সঙ্গে কথা বলে রিপোর্ট করেছেন সেলিম হোসেন।

CPJ বিবৃতিতে বলা হয় বাংলাদেশ বাক স্বাধীনতার ওপর চরম জঙ্গীবাদী মনোভাব ও সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছেন তারাই যারা ব্লগে বা অন্য কোনোভাবে তা প্রকাশ করার চেষ্টা করেছেন। CPJ এর এশিয়া গ্রোগাম রিসার্চ এ্যাসোসিয়েট সুমিত গালহোত্রা বলেন, “প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আহবান জানাচ্ছি; দেশে চরম জঙ্গীবাদ যেনো বিস্তৃতি না ঘটতে পারে সেজন্যে ঐসব সন্ত্রাসী হামলায় জড়িতদের বিচার করার”।

কয়েকমাস আগে সন্ত্রাসীদের হামলায় নিহত বাংলাদেশী আমেরিকান লেখক ও ব্লগার অভিজিৎ রায়ের বইয়ের প্রকাশক জাগৃতি প্রকাশনীর প্রধান ফয়সাল আরেফিন দীপনকে কুপিয়ে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। সেখানে থাকা আরো দুইজন লেখকেকও মারাত্মকভাবে আহত করে তারা।

এসব হত্যাকান্ড নিয়ে দেশে বিদেশে প্রতিবাদমুখর লেখক সাংবাইদক ব্লগার ও প্রকাশকরা। নিউইয়র্কর লেখকরাও এর কড়া প্রতিবাদ জানালেন। রবিবার জ্যাকসনহাইটসে তারা সমাবেবশ করেন। লেখক হাসান ফেরদৌস এর প্রতিবাদ জানালেন কড়া ভাষায়।

জাগৃতী প্রকাশনী থেকে অভিজিৎ রায়ের বই The Virus of Faith, প্রকাশিত হবার পর পরই তাকে মেরে ফেলার হুমকী দেয়া হয়েছিল। দীপনের বাবা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আবুল কাশেম ফজলুল হক বলেছেন অভিজিৎ রায়ের বই ছাপানোর কারনেই তার ছেলেকে হত্যা করা হয়েছে।

শনিবারই ঢাকার শুদ্ধাসর প্রকাশনি নামের আরেকটি প্রকাশনী অফিসে হামলা করে সন্ত্রাসীরা। শুদ্ধাসরের মালিক আহমেদ রহিম টুটুল ও দুই লেখক রন্দীপ বসু এবং তারেক রহিমকে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে দরজা বাইরে থেকে বন্ধ করে পালিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা। শুদ্ধাসর প্রকাশনী থেকেই অভিজিৎ রায়ের বই ছাপা হয়। হামলার আগে একই কায়দায় টুটুলকেও মৃত্যুর হুমকী দেয়া হয়েছিল।

নিউইয়র্কের মুক্তধারা প্রকাশনীর কর্ণধার বিশ্বজিৎ সাহা এ ধরনের হত্যাকান্ড বন্ধের দাবী জানান। বিশ্বব্যাপী সন্ত্রাসী ঘটনা নিয়ে গোয়ন্দা কার্যকম পরিচালনাকারী সংগঠন SITE তাদের রিপোর্টে বলেছে আল কায়েদা ওই দুই ঘটনার দায় শিকার করেছে।

প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রশাসন বলছে বাংলাদেশের সাম্প্রতিককালের সংঘাতময় অবস্থার জন্যে প্রধান বিরোধিদল দায়ী। এসব বন্ধ না করলে ভিবষ্যৎ প্রজন্ম বাক স্বাধীনতা পাবেনা বলে তা বন্ধের জন্যে সরকারেরর প্রতি জরুরী পদক্ষেপ নেয়ার আহবান জানালেন নিউইয়র্কে বসবাসকারী লেখিকা- প্রকাশক পপি চৌধুরী।

৫ জন লখক ব্লগার এবং সর্বশেষ প্রকাশক দীপন হত্যাকান্ড চাড়াও এর আগে ১৯শে অক্টোবর BDNews24 এবং The Dhaka Tribune; আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের পক্ষ থেকে হুমকী পেয়েছে। সকলেই দাবী করছেন অবিলম্বে যেনো এসব বন্ধ হয়।

XS
SM
MD
LG