অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

শরীফ-উল-হক
ঢাকা রিপোর্টিং সেন্টার
সহযোগিতায়- ইউএসএআইডি ও ভয়েস অফ আমেরিকা

অ তে অজগর আসছে তেড়ে, আ তে আমটি আমি খাব পেড়ে…।
শিক্ষকের হাত ধরে বর্ণমালার হাতেখড়ি। জীবনের ভিত রচনা করে দেন একজন শিক্ষক। মানুষ গড়ার কারিগর এই শিক্ষককে সম্মান জানাতে বিশ্বব্যাপী ৫ অক্টোবর পালন করা হয় ‘বিশ্ব শিক্ষক দিবস’। এবারের প্রতিপাদ্য ‘শিক্ষকদের জন্য আহবান’। শিক্ষক দিবসে ‘সেভ দ্যা চিলড্রেন’ এর ‘প্রতিভা’ প্রোগ্রাম এর ডেপুটি প্রোগ্রাম ডিরেক্টর কাজী এমদাদুল হক আমাদের বিস্তারিত বলেছেন শিক্ষকের সাথে শিক্ষার্থীর কেমন সম্পর্ক হওয়া উচিত। ‘সেভ দ্যা চিলড্রেন’ ইউএসএআইডির অর্থায়নে প্রতিভা প্রোগ্রামের মাধ্যমে তাঁরা শিক্ষকদের জন্য কাজ করছেন এবং সকল শিক্ষককে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।


শিক্ষক একজন শিক্ষার্থীর মধ্যে লুকিয়ে থাকা প্রতিভার বিকাশ ঘটাতে নিয়ামক হিসেবে কাজ করেন। কোন পথে গেলে লক্ষ্যে পৌঁছা সম্ভব, তা শিক্ষকের অজানা নয়। একজন প্রকৃত শিক্ষকই পারেন তাঁর ছাত্র/ছাত্রীর মাঝে কি প্রতিভা লুকিয়ে আছে তা খুঁজে বের করতে। তিনি দিতে পারেন সঠিক পথের সন্ধান।

গুরু শিষ্যের মধ্যে মিলনের মাধ্যমেই আবির্ভূত হয় অপূর্ব সৃষ্টির। তেমনি শিক্ষার্থীর সাথে শিক্ষকের সম্পর্কটা হওয়া চাই অতন্ত্য নিবিড়। শিক্ষক-শিক্ষার্থীর মধ্যে সুসম্পর্ক স্থাপন একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। একটি সুন্দর মিষ্টি সম্পর্কের মাধ্যমে রচিত হয় উন্নত ভবিষ্যত।

এই সম্পর্কের উন্নয়নের জন্য কাজ করছে বাংলাদেশ সরকার এবং বিভিন্ন NGO. যাদের মধ্যে গুরুত্বপূর্ন একটি ভূমিকা পালন করছে ইউএসএআইডির অর্থায়নে ‘সেভ দ্যা চিলড্রেন’ এর প্রতিভা প্রোগ্রাম। সারাদেশে বিস্তৃত কর্মপরিসরে এগিয়ে চলছে ‘প্রতিভা’ প্রোগ্রাম। এর মধ্যে রয়েছে কিভাবে শিক্ষকদের নৈতিক উন্নয়ন ঘটানো যায়, শ্রেণীকক্ষ এবং শ্রেণীকক্ষের বাইরে আরো বেশি সময় ধরে একজন শিক্ষার্থী তার শিক্ষকের সংস্পর্শে থাকতে পারে ইত্যাদি বিষয়।
শিক্ষা জাতির মেরুদন্ড। তেমনি একজন আদর্শ শিক্ষক পুরো শিক্ষা ব্যবস্থার মেরুদন্ড। শিক্ষক তার যথাযথ সম্মান না পেলে শিক্ষার উন্নতি কল্পনা করা অসম্ভব।
XS
SM
MD
LG