অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

প্রজনন স্বাস্থ্য শিক্ষা এবং এ বিষয়ে সচেতনতা


মোঃ আলী রেজা খান

মোঃ আলী রেজা খান

শরীফ উল হক
ঢাকা রিপোর্টিং সেন্টার
সহযোগিতায়- ইউএসএআইডি এবং ভয়েস অফ আমেরিকা

স্বাস্থ্যের বিভিন্ন দিকের মধ্যে প্রজনন স্বাস্থ্য একটি গুরুত্বপূর্ন অংশ। কিন্তু প্রজনন স্বাস্থ্য নিয়ে আলোচনা সমাজে খুব একটা ভাল চোখে দেখা হয় না।

স্যোশাল মার্কেটিং কোম্পানী(এসএমসি)ইউএসএআইডি’র অর্থায়নে এগিয়ে এসেছে এই ব্যবধান ঘোচাতে তাদের একটি প্রোগ্রাম ‘নতুন দিন’র মাধ্যমে। এসএমসি বাংলাদেশ সরকার, ইউএসএআইডি-এর সহায়তায় ‘মার্কেটিং ইনোভেশন ফর হেলথ প্রকল্পের’ আওতায় ‘নতুন দিন’ প্রোগ্রামটি বাংলাদেশে চালু করা হয়েছে বলে জানালেন স্যোশাল মার্কেটিং কোম্পানীর উপ ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ আলী রেজা খান।‘নতুন দিনের’ মাধ্যমে বয়ঃসন্ধিকালীন কিশোর-কিশোরীদের শারীরিক, মানসিক এবং অন্যান্য সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে সেগুলো সমাধানের চেষ্টা করা হয়। প্রজনন স্বাস্থ্য নিয়ে তাদের মাঝে একটি সচেতনতা তৈরিই মূল উদ্দেশ্য ‘নতুন দিন’-এর ।

কয়েক বছর আগেও ঘাতক ব্যাধি এইডস ছাড়া প্রজনন স্বাস্থ্যে নিয়ে কিশোর-কিশোরীরা তেমন কিছু জানত না বললেই চলে। কানে-মুখে ফিসফিস করে চলত এসব কথা।

কিন্তু বদলে যাচ্ছে বাংলাদেশ। আগের চেয়ে এখন অনেক বেশি সচেতন বাবা-মা, শিক্ষক এবং ছেলে-মেয়েরা। তারা নিজেদের মাঝেতো আলোচনা করছেই সাথে সাথে যেকোন ব্যপারে সাহায্য পাচ্ছে বাবা-মা, শিক্ষক এবং বন্ধুদের।

সরকারও বিষয়টি নিয়ে সচেতন হয়ে উঠেছে। তার ফলাফল, পাঠ্যক্রমে প্রজনন স্বাস্থ্যের বিষয়টি অন্তর্ভূক্তি। জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের চেয়ারম্যান,প্র ফেসর আবুল কাসেম মিয়া বললেন, ৬ষ্ঠ শ্রেণীর পাঠ্যপুস্তক থেকে শুরু হয়েছে এই প্রজনন স্বাস্থ্য নিয়ে আলোচনা। যেটা আরো খোলামেলাভাবে বলা হয়েছে অষ্টম ও নবম শ্রেণীর বইয়ে।

ইউএসএআইডি’র অর্থায়নে ‘মার্কেটিং ইনোভেশন ফর হেলথ প্রকল্পের’ আওতায় ‘নতুন দিন’ প্রোগ্রামটি ২০১২ সাল থেকে শুরু হয়েছে, চলবে ২০১৬ সাল পর্যন্ত। এই চার বছরে লক্ষ্য সাড়ে ছয় লাখ কিশোর-কিশোরীর কাছে পৌঁছানো এবং তাদের প্রজনন স্বাস্থ্য নিয়ে সচেতন করে তোলা।

প্রজনন স্বাস্থ্যকে বাদ দিয়ে ভাবা যায় না একটি সুন্দর পরিবার। বিষয়টি জানতে হবে এবং জানাতে হবে।সমাজের সবাই এগিয়ে আসবে জানতে এবং জানাতে, এই প্রত্যাশা সংশ্লিষ্ট সকলের।
XS
SM
MD
LG