অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইউএসএআইডি এবং ডিএফআইডি’র পার্টনারশীপ: স্বাস্থ্য সেবায় নতুন দ্বার উন্মোচন


শরীফ উল হক
ঢাকা রিপোর্টিং সেন্টার
সহযোগিতায় – ইউএসআইডি এবং ভয়েস অফ আমেরিকা

দি ইউনাইটেড স্টেটস এজেন্সি ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট ‘ইউএসএআইডি’ এবং ইউনাইটেড কিংডম’স ডিপার্টমেন্ট ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট ‘ডিএফআইডি’, সূর্যের হাসি নেটওয়ার্কের মাধ্যমে দরিদ্রদের জন্য স্বাস্থ্য সেবার গুণগত মান বৃদ্ধি এবং সেবা আরো সম্প্রসারিত করার জন্য অংশীদারিত্বের মাধ্যমে কাজ করতে অঙ্গীকারাবদ্ধ হয়েছে।

এই নতুন অংশীদারিত্বের মাধ্যমে ইউএসএআইডি’র অর্থায়নে এনজিও হেলথ সার্ভিস ডেলিভারী প্রজেক্টের সাথে যোগ দিয়েছে ডিএফআইডি।

১০জুন ২০১৪, বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার রূপসী বাংলা হোটেলে অনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয় এই অংশীদারিত্বের। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রনালয়ের মাননীয় সচিব এম.এম নিয়াজউদ্দিন, ইউএসএআইডি’র মিশন ডাইরেক্টর জানিনা জারুজেলস্কি এবং ডিএফআইডি বাংলাদেশের কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ সারাহ কুক। এছাড়াও ছিলেন সূর্যের হাসি ক্লিনিকের সাবেক ব্রান্ড এ্যাম্বাসেডর অভিনেত্রী জয়া আহসান।

১৯৭১ সাল থেকে ইউএসএআইডি’র মাধ্যমে ইউএস সরকার বাংলাদেশের জনগণের স্বাস্থ্য খাতে উন্নয়নের জন্য ৬ বিলিয়ন ডলারেরও বেশি সাহায্য প্রদান করেছে এবং ২০১৩ সালে প্রায় ২০০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করেছে। ডিএফআইডি এবং ইউএসএআইডি বাংলাদেশ সরকারের সাথে অত্যন্ত নিবিড়ভাবে কাজ করার ফলে সুর্যের হাসি ক্লিনিকের কার্যক্রম একটি নতুন মাত্রায় পৌঁছাবে বলে আশাবাদী এনএইচএসডিপি প্রজেক্টের চিফ অব পার্টি ড.হালিদা আক্তার।

ইউএসএআইডি’র অর্থায়নে এনজিও হেলথ সার্ভিস ডেলিভারী প্রজেক্টের সূর্যের হাসি ক্লিনিক ২৬টি এনজিও’র ব্যবস্থাপনায় ৬৩২০জন কমিউনিটি হেলথ ওয়ার্কারের মাধ্যমে স্বাস্থ্য সেবা পৌঁছে দিচ্ছে। প্রতিবছর মোট জনগোষ্ঠীর ১৪ শতাংশ মানুষকে স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করছে সূর্যের হাসি ক্লিনিক। লক্ষ্য ১০ মিলিয়ন মাকে এই সেবার মধ্যে অন্তর্ভূক্ত করা।

নতুন করে এই পথ চলায় ডিএফআইডিব ওরমেরীস্টোপস ক্লিনিক সোসাইটি বাংলাদেশ-এর সাথে অন্তর্ভূক্ত হবে এবং ব্র্যাক ঐকান্তিকভাবে সহযোগিতা করবে।

এই কর্মসূচির মাধ্যমে গর্ভবতী দরিদ্র মায়েদের জন্যে দক্ষ সেবা নিশ্চিতের পাশাপাশি, মা ও শিশুর ভালভাবে বেঁচে থাকার সুযোগ সৃষ্টি হবে এবং সুন্দর একটি সমাজ গড়ে উঠবে বলে প্রত্যাশা সকলের।
XS
SM
MD
LG