অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

শরীফ উল হক
ঢাকা রিপোর্টিং সেন্টার
সহযোগিতায়- ইউএসএআইডি এবং ভয়েস অফ আমেরিকা

সিসিমপুরের আট বছরের এই যাত্রায় সাথে ছিল হালুম, টুকটুকি, ইকড়িসহ আরো অনেকে। নতুন বছরে নতুন বন্ধু রায়া, এলমো ও খেপু। বাহাদুর এবং সুমনাতো আগে থেকেই ছিল। এই বছর সিসিমপুরে জীববৈচিত্র্য, পরিবেশ, ভুমিকম্প এবং পানিজনিত বিপদসহ আরো কিছু বিষয়ের উপর গুরত্ব দেয়া হবে।

নবম বছরে পা দেয়া উপলক্ষ্যে ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৫,বেঙ্গল মাল্টিমিডিয়া স্টুডিও’তে সিসিমপুর আয়োজন করেছিল এক আনন্দ আয়োজনের। আয়োজন নিয়ে বললেন ইউএসএআইডি বাংলাদেশের কমিউনিকেশন স্পেশালিষ্ট লিন্ডা কামার। ছোট্ট একটি মেলার আয়োজন করা হয়েছে বেঙ্গলস্টুডিও প্রাঙ্গনে যেখানে অনেক শিশু কিশোর খেলার মাধ্যমে শিখছে বিভিন্ন প্রয়োজনীয় বিষয়বস্তু। এবং পুরো অনুষ্ঠানটি সাজানো হয়েছে মাপেটদের পরিবেশনার মাধ্যমে বলে জানালেন লিন্ডা কামার।

ইউএসএআইডি’র অর্থায়নে অতন্ত্য জনপ্রিয় এই অনুষ্ঠানটি বাংলাদেশের শিশুদের জীবন দক্ষতা এবং সামাজিক-আবেগিক উন্নয়নে পরিচালিত হচ্ছে। ২০০৪ সাল থেকে সিসিমপুরের সাথে আছে ইউএসএআইডি। সামনের দিনগুলোতেও ইউএসএআইডি সিসিমপুরের সাথে থাকবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করলেন লিন্ডা কামার।

আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় তথ্য মন্ত্রী, মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী এবং বাংলাদেশের মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট। এছাড়াও ইউএসএআইডি এবং সিসেমি ওয়ার্কশপের পদস্থ কর্মকর্তা বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন । মার্কিন রাষ্ট্রদূত বললেন,তার অনুভূতি। তিনি অতন্ত্য আনন্দিত বোধ করছেন সিসিমপুরের নবম বর্ষে পদার্পনে। তিনি নিজেও সিসিমপুরের একজন ভক্ত বলে জানালেন।

সিসেমি ওয়ার্কশপ,নিউইয়র্ক এর তত্ত্বাবধায়নে এশিয়াটিক মার্কেটিং লিমিটেড এর প্রযোজনায় বাংলাদেশে প্রাক প্রাথমিক থেকে দ্বিতীয় শ্রেণীর শিশুদের জন্য তৈরী হচ্ছে এই শিক্ষামুলক শিশুতোষ অনুষ্ঠানটি। যা আগামীতে শিশুদের মানবিক গুনাবলী অর্জনে সহায়ক হবে বলে আশাবাদী সংশ্লিষ্ট’রা।

XS
SM
MD
LG