অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আঙ্গুর নাহার মন্টি, ঢাকা রিপোর্টিং সেন্টার

সহযোগিতায় - ইউএসএআইডি ও ভয়েস অফ আমেরিকা

আমরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ধরনের স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছি। বিশেষ করে যখন মাছ, মাংস, ফলমূল, শাক-সব্জিতে মেশানো হচ্ছে নানা ধরনের রাসায়নিক কীটনাশক। পাশাপাশি ফরমালিন তো রয়েছেই। এতে মারাত্মক সব রোগে আক্রান্ত হচ্ছে মানুষ। এই বাস্তবতায় গত ৭ এপ্রিল সারা বিশ্বের মতো বাংলাদেশেও সরকারি ও বেসরকারিভাবে নানা আয়োজনে পালিত হয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস ২০১৫। এবার প্রতিপাদ্য ছিল ‘নিরাপদ পুষ্টিকর খাবার, সুস্থ্য জীবনের অঙ্গিকার’।

স্বাস্থ্য খাত সংশ্লিষ্টদের মতে, বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে এই প্রতিপাদ্য অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। কারণ উৎপাদন থেকে শুরু করে প্রক্রিয়াকরণ, সংরক্ষণ ও বিপণনের বিভিন্ন পর্যায়ে খাদ্য ভেজাল ও দূষণের শিকার হয়। এসব ভেজাল, অনিরাপদ ও দূষণযুক্ত খাবার গ্রহণের ফলে জনস্বাস্থ্য মারাত্মক হুমকির সম্মুখীন হচ্ছে। খাদ্যদূষণের ফলে মানুষের মধ্যে অসংক্রামক ব্যাধি ক্রমেই বাড়ছে। এর মধ্যে অনিয়ন্ত্রিত রক্তচাপ, ক্যান্সার, কিডনি সমস্যা অন্যতম।

এদিকে স্বাস্থ্য অধিকার আন্দোলনের সভাপতি জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ড. রশিদ ই মাহবুব বাংলাদেশের সার্বিক স্বাস্থ্যচিত্র ভাল অবস্থানে রয়েছে বলে মনে করেন। তবে তার মতে, শিশু পুষ্টিক্ষেত্রে বাংলাদেশ এখনও দুর্বল।কিন্তু মেডিকেয়ারের ক্ষেত্রে সরকারি-বেসরকারি দু’জায়গায়ই জবাবদিহিতার সমস্যা আছে। আউট অফ পকেট এক্সচেঞ্জ বেশি বলে দরিদ্র রোগীদের চিকিৎসা সেবায় সমস্যা রয়েছে।

তিনি আরো বলেন, অসংক্রামক ব্যধিগুলোর ক্ষেত্রে সচেতনতা বাড়াতে নিরাপদ খাদ্যকে প্রাধান্য দিতে হবে। নিরাপদ খাদ্য এখনো নিশ্চিত করা যায়নি। সম্প্রতি নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতের জন্য আইন পাস হয়েছে। খাদ্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব এটি প্রয়োগের, কতটুকু সম্ভব হবে জানি না। তবে নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতে একটি রাজনৈতিক সিদ্ধান্তের দরকার। সম্মিলিত প্রচেষ্টা ছাড়া এটি সম্ভব হবে না।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্য অনুসারে, খাবারের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট রোগ এবং মানবদেহের জন্য ক্ষতিকারক দিক নিয়ে বর্তমানে বিশ্বব্যাপি উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা বাড়ছে। তাই এ বছরের প্রতিপাদ্য অনুযায়ি প্রতিটি দেশে নিরাপদ খাদ্য সংগ্রহ, সরবরাহ ও গ্রহণ নিশ্চিত করে নিরাপদ থাকার ওপরই বিশেষভাবে জোর দেয়া হচ্ছে। আসুন ব্যক্তিগত পরিচ্ছন্নতা থেকে শুরু করে খাবার-দাবারের বিষয়ে বাড়তি সচেতনতার মাধ্যমে স্বাস্থ্য ঝুকিঁগুলো প্রতিরোধ করি, সুস্থ থাকি।

XS
SM
MD
LG