অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মিশরের গন-বিপ্লব বিষয়ে প্রতিক্রিয়া

  • সরকার কবীরূদ্দীন

নিউ ইয়র্কে জনগনের উল্লাস

নিউ ইয়র্কে জনগনের উল্লাস

আরব জাহানের সবচেয়ে বেশি জনসংখ্যা অধ্যুষিত দেশ মিশরের নাটকীয় এই পরিবর্তনেকে প্রেসিডেন্ট ওবামা তামাম দুনিয়ার জন্যে ইতিহাস সৃষ্টির ঘটনা রূপে অভিহিত করেন। বলেন – মিশরের মানুষ সোচ্চার হয়েছেন – তাঁরা তাঁদের কণ্ঠস্বর শুনতে বাধ্য করেছেন – মিশর আর সেই আগের মিশর রইবে না। প্রেসিডেণ্ট ওবামা বলেন – নতুন একটা প্রজন্ম জেগে উঠেছে – গণতান্ত্রিক মিশর এখন মধ্যপ্রাচ্যে, তামাম দুনিয়া জুড়ে দায়িত্বশীল নেতৃত্বের ভুমিকা নিয়ে এগিয়ে যেতে পারবে। প্রেসিডেণ্ট ওবামা বলেন – গণতন্ত্র অভিমুখের এ যাত্রা দুরূহ হবে তবে যুক্তরাষ্ট্র, সাহায্য-সহায়তা যাই দরকার তার জোগান দেবে। বিশ্বাসযোগ্য, আস্থাশীল অন্তর্বর্তীকালীন ক্ষমতা হস্তান্তরন নিশ্চিত করতে তিনি মিশরের নতুন সামরিক নেতাদের প্রতি আহ্বান জানান – জরূরী আইন তুলে নিতে বলেন, অবাধ-নিরপেক্ষ নির্বাচন অভিমুখি পথটাকে সূগম করতে বলেন। বলেন – আবার একবার মিশর ইতিহাসের ধারা ন্যায়ের পথে পরিচালিত করতে সন্ত্রাস নয় অহিংসার নৈতিক শক্তি, অহেতুক হত্যাযজ্ঞ নয় অহিংসার - নৈতিক বল প্রয়োগ করলো । প্রেসিডেণ্ট ওবামা মিশরের সামরিক বাহিনী ও হাজার হাজার প্রতিবাদ বিক্ষোভকারীদের প্রতি সহিংস পন্থা পরিহার করবার জন্যে আহ্বান জানান।

হোসনি মোবারকের পদত্যাগের পর পরই বৃটিশ প্রধাণমন্ত্রী ডেভিড ক্যামারন মিশরের নতুন শাসকবৃন্দকে উদ্দেশ করে বলেন – সত্যিকার উন্মুক্ত, অবাধ এবং গনতান্ত্রিক সমাজ গড়ার উপযোগী সূচনা পর্ব রচনারই সরকার হাজির হলো, এটাই আমরা বিশ্বাস করি। য়ুরোপিয় য়ুনিয়নের পররাষ্ট্র সম্পর্ক বিভাগিয় প্রধাণ ক্যাথরীন এ্যাশটান বলেন – ক্ষমতা হস্তান্তরনের দায়িত্ব বর্তালো এখন যাঁদের ওপর তাঁরা জনগনের আশা-আকাংখা পূরনে সক্ষম হবেন বলে উচ্চাশা আমাদের – এবং য়ুরোপিয় য়ুনিয়ন সাহায্য যোগাতে পাশেই রইবে। জার্মানীর চান্সেলার এ্যাঙ্গেলা মার্কেল মিশরকে তার আন্তর্জাতিক দায়বদ্ধতা পূরণ করবার আহ্বান জানান । জাতিসংঘ মহাসচীব প্রতিবাদকারীদের সংযমের প্রতি সাধুবাদ জানিয়ে বলেন – মিশরের, বিশেষ করে যুব সমাজের বক্তব্য শুনেছি আমরা – দেশের ভবিষ্যত গড়ার দায়িত্ব এখন তাদেরই হাতে। আমরা জানি, এই মাত্রই ক’সপ্তাহ আগে, অসন্তোষ মাথা চাড়া দিয়েছিলো যেখানে – যেখানকার জনগন দেশের সরকারের পতন ঘটিয়েছিলো – দেশের চালকদের দেশছাড়া করেছিলো যে তিউনিসিয়া, মিশরীয়দেরকে – অন্যান্যদেরকে উদ্বুদ্ধ করেছিলো – সেই তারাও হয়তো বিশ্বাস করতে পারেনি যে ঘটনাপ্রবাহ ঐ অঞ্চলে ঠিক এভাবে, এই গতিতে উত্তাল ধারায় বয়ে যাবে। এ অভিব্যক্তিরই প্রতিধ্বনী মিললো তিউনিসের বাসিন্দা সাফিয়া রূয়ীসের কন্ঠে।

মিশরীয়দেরকে – সকল আরববাসিকে মোবারকবাদ জানান তিনি। অপেক্ষাকৃত ক্ষুদ্রাকারে হলেও, জর্ডানেও প্রতিবাদ বিক্ষোভের স্ফুরন নজরে এসেছে। সেখানে মুহূর্রমুহূ হর্ষধ্বনীতে আকাশ বাতাস মুখরিত হয়, মিশরের জয়গানে। আনন্দ উত্সবের ঢেউ বয়ে যায় ফিলিস্তিনীদের গাযা ভূখন্ডেও । হামাস মূখপাত্র সামি আবূ যাহরীর কণ্ঠে প্রতিধ্বনিত হয় ফিলিস্তিনীদের স্তুতিবাদ। সামি আবু যাহরী মনে করেন হোসনি মোবারকের পদত্যাগের মধ্যে দিয়ে মিশরীয় বিপ্লবের বিজয় ঘোষিত হয়েছে – মিশরীয় জনগনের দাবীর প্রতি সমর্থন জানায় হামাস।

XS
SM
MD
LG