অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মিশর পরিস্থিতি সম্পর্কে সৈয়দ মোহাম্মদউল্লার বিশ্লেষন


রবিবার মিশরে হাঙ্গমায় আটক লোক ভর্তি জেলখানার এক ট্রাকে এক পুলিশ কর্মিকে উদ্ধারের চেষ্টা করতে গিয়ে আরক্ষা বাহিনী ঐ ট্রাকের ভেতর টিয়ার গ্যাস মারলে তাতে কমসে কম ৩৬ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে বলা হচ্ছে কায়রোর রামসেস চত্বর থেকে ঐ লোকজনকে হাঙ্গামার সময় আটক করা হয়েছিলো গত চারদিনের দেশব্যাপি হাঙ্গামায় ৯ শো লোকের মৃত্যু হলো । আর্মি নেতা আব্দেল ফাতাহ এল সিসি বলছেন – হানাহানি সহ্য করা হবেনা । মুসলিম ব্রাদারহূড বলছে – মানুষ যতো মরবে – ততোই বেশি করে লোক বিক্ষোভে শামিল হবে । যুক্তরাষ্ট্রে রেপালিকান সেনেটর জন ম্যাকেইন বলছেন – যাই ঘটছে চুপচাপ বসে থেকে দেখে যাওয়া আমাদের মূল্যবোধের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয় । ডেমোক্র্যাট দলিয় কংগ্রস বিধায়ক এলিঅট এঙ্গেল বলছেন – মিশর খুব গুরুত্বপূররণ দেশ / খুব ভেবেচিন্তে এগুনো দরকার মিশরের ব্যাপারে ।

এখনো অব্দি ব্রাদারহুড পিছু হঠবার কোনো লক্ষন দেখাচ্ছে না – সামরিক নেতৃত্ব পরবর্তি নির্বাচনে সকলের অংশিদারিত্বের কথা বললেও – ব্রাদারহুডকে আবার একবার নিষিদ্ধ করার কথাবার্তাও শোনা যাচ্ছে । কিভাবে মূল্যায়ন করা যায় ?
এ জিজ্ঞাসার জবাব দিয়েছেন নিউ ইয়র্ক প্রবাসী সাংবাদিক সৈয়দ মোহাম্মদউল্লাহ ভয়েস অফ এ্যামেরিকার বাংলা বিভাগের সঙ্গে এ প্রশ্নের মূল্যায়নে । ওয়াশিংটন স্টুডিও থেকে তাঁর সঙ্গে কথা বলেন সরকার কবীরূদ্দীন ।egypt
XS
SM
MD
LG