অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

জাতিসংঘে শুক্রবার যাচ্ছে প্যারিস চুক্তি


France Europe Climate

France Europe Climate

ইউরোপীয় পার্লামেন্ট জলবায়ু সংক্রান্ত ঐতিহাসিক প্যারিস চুক্তি অনুমোদন দেয়ার পর এই চুক্তি কার্যকরে বড় বাধা দুর হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। গত মঙ্গলবার ইইউ পার্লামেন্ট এই চুক্তিটি অনুমোদন দেয়। এর সমর্থনে ভোট পড়ে ৬১০টি, বিপক্ষে ৩৮টি। ৩১ জন অনুপস্থিত থাকেন।
আগামীকাল শুক্রবার ইইউ’র অনুমোদন সংক্রান্ত দলিলপত্র জাতিসংঘ সদরদপ্তরে পেশ করার কথা রয়েছে। ব্রেক্সিট এবং অভিবাসী সঙ্কটে ভূগতে থাকা ইইউ’র ২৮টি দেশ যে চুক্তিতে উপনীত হয়েছে তাকে একটি মাইল ফলক হিসেবে দেখা হচ্ছে। কারণ প্যারিস চুক্তি চূড়ান্তভাবে কার্যকর করতে অন্তত ৫৫ ভাগ বৈশ্বিক নিঃসরণের জন্য দায়ী দেশের অনুসমর্থন দরকার। বর্তমানে ৪৭ দশমিক ৮ ভাগ গ্রিনহাউস গ্যাস নিঃসরণকারী ৬৩টি দেশ অনুসমর্থন করেছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ২০১৫ সালের প্যারিস চুক্তি ‘ফসিল ফুয়েল’ বা জীবাশ্ম জ্বালানিকে দূরে সরিয়ে বিশ্ব অর্থনীতিকে একটি যুগান্তকারী পরিবর্তনের পথে নিয়ে একটি নির্দেশক হিসেবে কাজ করবে। বিশ্বের শীর্ষ গ্রিনহাউস গ্যাস নিঃসরণকারী হিসেবে পরিচিত যুক্তরাষ্ট্র, চীন এবং ভারত ইতোমধ্যে অনুসমর্থন দিয়েছে। ইউরোপীয় জলবায়ু কমিশনার পার্লামেন্টের ওই সিদ্ধান্তকে ঐতিহাসিক আখ্যা দিয়ে বলেছেন, জলবায়ু পরিবর্তনের নেতৃত্ব থেকে ইইউ যে হারিয়ে যায়নি এটি তারই প্রমাণ। তিনি বলেন, দুনিয়া এগোচ্ছে। আর এর চালকের আসনে রয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন।
লন্ডন থেকে মতিউর রহমান চৌধুরীর রিপোর্ট।


XS
SM
MD
LG