অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইউরোপীয় নেতারা রাশিয়ার সঙ্গে অস্ত্র আলোচনা শুরু করতে চান


জার্মানির নেতৃত্বে ১৪টি ইউরোপীয় দেশের নেতারা এক যুক্ত বিবৃতিতে রাশিয়ার সঙ্গে অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আলোচনা ফের শুরুর তাগিদ দিয়েছেন। তারা বলেছেন বিদ্যমান অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা ধীরে ধীরে দুর্বল হয়ে পড়েছে। এ অবস্থায় দেশগুলো নতুন একটি কাঠামোবদ্ধ সংলাপের মাধ্যমে প্রচলিত অস্ত্র চুক্তি আলোচনার জরুরি প্রয়োজন দেখছে বলেও উল্লেখ করা হয় বিবৃতিতে।

ফ্রান্স, স্পেন, হল্যান্ড, বেলজিয়াম, সুইজারল্যান্ড, ইতালিসহ ১৪ টি দেশের নেতারা বিবৃতিতে রাশিয়ার কড়া সমালোচনা করেন। এতে বলা হয়, শীতল যুদ্ধের অবসানের পর সাক্ষরিত অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ চুক্তিগুলো দুর্বল হয়ে যাওয়ার পেছনে রাশিয়াই দায়ী। ‘দ্য কনভেশনাল ফোর্সেস ইন ইউরোপ ট্রিটি’ যার অধীনে ১৯৯০ সালের পর ইউরোপজুড়ে লাখো ভারী অস্ত্রশস্ত্র ধ্বংস করা হয়, অথচ এই চুক্তিটি এখন রাশিয়া মেনে চলছে না। বিবৃতিতে সতর্ক করে দিয়ে বলা হয়, ভিয়েনা নথিপত্র একটি সামরিক তৎপরতা সংক্রান্ত তথ্য আদান প্রদান নিশ্চিত করার জন্য প্রধান চুক্তি, সেটির বড় ধরণের আধুনিকায়নের প্রয়োজন দেখা দিয়েছে।

নেতারা ইউরোপের ক্রমবর্ধমান অস্থিতিশীল নিরাপত্তা পরিস্থিতির মুখে কৌশলগত স্থিতিশীলতা, সংযম, অনুমান, যাচাইযোগ্য স্বচ্ছতা, পুনঃস্থাপন করা ও সামরিক ঝুঁকি হ্রাস করার জরুরি প্রয়োজন বোধ করেন।

জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফ্রাঙ্ক-ওয়াল্টার স্টেইনমেয়ের এ প্রসঙ্গে বলেছেন, এই মূহুর্তে ইউরোপ নিরাপত্তা হুমকিতে রয়েছে। ইউক্রেন সঙ্কটে রাশিয়ার সংশ্লিষ্টতা নতুন অস্ত্র প্রতিযোগিতার ঝুঁকি সৃষ্টি করছে। রাশিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক এখন যতো কঠিন ততোই সংলাপের বেশি প্রয়োজন বলে জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী উল্লেখ করেন। লন্ডন থেকে মতিউর রহমান চৌধুরী

XS
SM
MD
LG