অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

শ্বেতাঙ্গ পুলিশ কর্মকর্তাকে অভিযুক্ত না করায় জ্বলে উঠেছে মিজৌরীর ফার্গুসন


মিজৌরীর এক গ্র্যান্ড জুরি কতৃক ফার্গুসন শহরে কৃষ্ণাঙ্গ কিশোর মাইকেল ব্রাউনকে গুলী করে হত্যার অভিযোগে শ্বেতাঙ্গ পুলিশ কর্মকর্তা ড্যারেন উইলসনকে অভিযুক্ত না করায় শহর জুড়ে দেখা দিয়েছে অসস্তোষ ও সহিংসতা। ভয়েস অব আমেরিকার সংবাদদাতাদের পাঠানো খবরের ভিত্তিতে রিপোর্ট।

জ্বলে উঠেছে মিজৌরীর ফার্গুসন। শ্বেতাঙ্গ পুলিশ কর্মকর্তা ড্যারেন উইলসনকে অভিযুক্ত না করার সিদ্ধান্ত প্রচার হবার সঙ্গে সঙ্গে ফার্গুসন পুলিশ বিভাগের বাইরে জড়ো হওয়া মানুষেরা উত্তেজিত হয়ে ওঠেন। তাদের থামাতে পুলিশ টিয়ার গ্যাস ছোড়ে। উত্তেজিত জনতা শুরু করে অগ্নিসংযোগ। সেন্ট লুইসকাউন্টি পুলিশ প্রধান জন বেলমার বলেন, ডজন-খানেক বাড়ীতে আগুন লাগানো হয়-যার বেশরিভাগই ভম্মীভূতহয়েছে। তিনি বলেন কেউ মারাত্মক জখম হয়নি। ২৯ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তিনি বলেন অনেকেই এখানে আর ফিরবে না। এতে আমার দু:খ লাগছে। ভাল খবর হচ্ছে পুলিশ কর্মকর্তাদের কেউ মারাত্মক আহত হয়নি। একজন লিউটেন্যোন্ট বোতলের আঘাতে আহত হযৈছৈ।

ফার্গুসনের কাছাকাছির শহর কলাম্বিয়ায় থাকেন চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডক্টর রাশেদ নিজাম। পরিস্থিতি সম্পর্কে ভয়েস অব আমেরিকাকে তিনি জানান তাঁর প্রতিক্রিয়া।

গোটা এলাকা জুড়েই প্রতিবাদ বিক্ষোভ হয়েছে। বিক্ষোভ হয়েছে নিউইয়র্কের টাইমস স্কোয়ারে, প্রতিবাদ সমাবেশ হয়েছে ওয়াশিংটনে, হোয়াইট হাউজের সামনেও। ওকল্যান্ড আর শিকাগোয় প্রতিবাদ বিক্ষোভের তোড়ে মহাসড়কে যানজট পাকিয়ে ওঠে শ্লোগান- স্লোগান শোনা যায় পুলিশের জুলুম-হাত ওঠাও গুলি করোনা-police tyranny- hands up don’t shoot, ইত্যাদি।

XS
SM
MD
LG