অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশে বিদেশী নাগরিক খুন হওয়ায় বিদেশী সরকারসমূহ উদ্বিগ্ন


সম্প্রতি বাংলাদেশে একজন ইটালীয়ান ও একজন জাপানী নাগরিক খুন হওয়ায় বিদেশী সরকারসমূহ বাংলাদেশে তাদের নাগরিকদের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন। ইসলামিক ষ্টেট নাকি অন্য কোনো জঙ্গী গোষ্ঠী ওই নৃশংস হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িত তা নিয়ে বিতর্ক উঠেছে। এসব নিয়ে কলকাতা থেকে শেখ আজিজুর রহমানের পাঠানো রিপোর্ট শোনাচ্ছেন সেলিম হোসেন।

২৮শে সেপ্টেম্বর ঢাকার ডিপ্লোমেটিক জোনে অজ্ঞাত বন্দুকধারীরা গুলী করে হত্যা করে ইটালীর নাগরিক সিজার ট্যাভেলাকে। তিনি নেদারল্যান্ডস-ভিত্তিক একটি উন্নয়ন সংস্থা’র প্রকল্প পরিচালক ছিলেন।

শনিবার রংপুরের প্রত্যন্ত এক গ্রামের নিজ কৃষি খামারে তিন অজ্ঞাত বন্দুকধারীর হাতে একই কায়দায় খুন হলেন জাপানী নাগরিক কুনিও হোশি।

বাংলাদেশে বিদেশী নাগরিকদের ওপর এ ধরনের বর্বর আক্রমন খুবই কম হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয়ন ইউনিয়ন ও জাপান দ্রুত ওই ঘটনার তদন্ত ও বিচার করার দাবী জানিয়েছে।

ইসলামিক ষ্টেট জঙ্গী গোষ্ঠী পরিচালিত টুইটার এ্যাকাউন্টে ওই দুই হত্যাকান্ডের দায় নিয়েছে তারা। জঙ্গী সংগঠনসমূহের কর্মকান্ড পর্যবেক্ষণকারী যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক গোয়েন্দা প্রতিষ্ঠান SITE-ও বলেছে বাংলাদেশের ওই দুই বিদেশী নাগরিক হত্যার দায় নিয়েছে ইসলামিক ষ্টেট।

তবে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ইসলামিক ষ্টেট নয়, ওই হত্যাকান্ডের জন্য দায়ী দেশের প্রধান বিরোধীদল বিএনপি ও তার সহযোগী জামাতে ইসলামী।

তিনি বলেন বাংলাদেশ সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড নস্যাৎ করতে সরকারকে নীচু দেখাতে গত কয়েক বছর ধরে তারা যেসব সহিংস কাজকর্ম করে আসছে ওই দুই হত্যাকান্ডও তারই মত।

বিএনপি মুখপাত্র আসাদুজ্জামান রিপন প্রধানমন্ত্রীর ওই মন্তব্যকে দুর্ভাগ্যজনক ও বেঠিক বলেছেন।

বাংলাদেশর নিরাপত্তা বিশ্লেষকেরা দুই বিদেশী হত্যাকান্ড নিয়ে উদ্বিগ্ন এবং তা ইসলামিক ষ্টেট ঘটিয়েছে না অন্য কেই তা নিয়েও দ্বিধা দ্বন্দ্বে রয়েছেন।

ঢাকাস্থ ইনষ্টিটিউট অব কনফ্লিক্ট ল এ্যান্ড ডেভলপমেন্ট ষ্টাডিজের নির্বাহী পরিচালক মেজর জেনারেল (অব) মোহাম্মদ আব্দুর রশিদ ভয়েস অব আমেরিকাকে বললেন, “হতে পারে ছোট কোনো ইসলামপন্থী জঙ্গী গোষ্ঠি যারা জিহগাদী আদর্শে বিশ্বাসী তারাই এটি ঘটিয়েছে। হত্যাকারীরা আই এসের পরিচয় দিয়েছে বলে এই হত্যাকান্ড দুটি যে আইএসই ঘটিয়েছে তা ষ্পষ্ট করে বলা যাবেনা। আমরা মোটামুটি নিশ্চত যে বাংলাদেশে ইসলামিক ষ্টেটের কোনো নেটওয়ার্ক নেই”।

বাংলাদেশ পুলিশের কয়েক দফায় দেয়া বক্তব্যে বলা হয়েছে ৫ দিনের বিরতিতে দুটি হত্যাকান্ড ঘটলেও বোঝা যাচ্ছে একই উদ্দেশ্যে একই কায়দায় তা ঘটানো হয়। এখনও পর্যন্ত পুলিশ ওই দুই ঘটনায় কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন বাংলাদেশে আইএস এর অস্তিত্ব নেই এবং ওই দুই হত্যাকান্ড তারা ঘটায়নি। কেউ নিজ স্বার্থ হাসিলের উদ্দেশ্যে তা ঘটিয়েছে।

বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্সিয়া বার্নিকাট বলেছেন সন্ত্রাস দমনে বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্র একসঙ্গে কাজ করবে। রবিবার ঢাকায় এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি দুই বিদেশী হত্যাকান্ডের ঘটনা তদন্ত করে দ্রুত দোষীদেরকে শাস্তি দানের আহবান জানান।

বাংলাদেশে জাপান, দক্ষিন কোরিয়া ও পশ্চিমী দেশের বেশ কিছু বিদেশী দূতাবাস, হাই কমিশন তাদের কুটনীতিক ও নাগরিকদেরকে সেখানে চলাফেরায় বিশেষ নিরাপত্তা ব্যাবস্থা নেয়ার পরামর্শ দিয়েছে।

বাংলাদেশের ব্যাবসায়ীদের সংগঠন ঢাকা চেম্বার অব কমার্স এ্যান্ড ইন্ডাষ্ট্রী এক বিবৃতিতে জানিয়েছে দুই বিদেশী হত্যার ঘটনায় বাংলাদেশের রপ্তানী ও সেখানে বিদেশী বিনিয়োগের ওপর বিরূপ প্রভাব পড়বে।

পোষাক রপ্তানীকারকরাও বলছেন ওই ঘটনার বিরূপ প্রভাব পড়বে সারা বিশ্বে ২৫৫০ কোটি ডলারের পোষাক রপ্তানীর ওপর।

পর্যটন ব্যাবসায়েও এর নেতিবাচক প্রভাব পড়ার কথা জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ। বেঙ্গল ট্যুরের প্রধান মাসুদ হোসেন জানান ইউরোপ কোরিয়া জাপানসহ অন্যান্য দেশ থেকে মাসে অন্তত ২০০ পর্যটক নিয়ে তারা সুন্দরবন যান। ওই ঘটনার কারনে এ মাসে তা বাতিল করতে হয়েছে।

বিশ্লেষকরা বলছেন বিদেশী হত্যার ঘটনায় বাংলাদেশের রাজনীতি অর্থনীতি সমাজ সহ সকল ক্ষেত্রেই নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে।

XS
SM
MD
LG