অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ফ্রান্সের একটি চার্চে এক ধর্মযাজককে ছুরির আঘাতে হত্যা করেছে দুই ইসলামিক স্টেইটের লড়াকূ


ফের আতঙ্ক ফ্রান্সে। নিসের রক্তের দাগ মুছতে না মুছতেই মঙ্গলবার সকালে উত্তর ফ্রান্সের নরম্যান্ডি এলাকার একটি গীর্জায় দুই হামলাকারী এক যাজককে গলা কেটে হত্যা করেছে। এর আগে তারা ধারালো চুরি হাতে গীর্জায় ঢুকে কয়েকজনকে জিম্মি করে নেয়। পরে পুলিশের গুলিতে দুই হামলাকারী নিহত হয়। এ ঘটনার দায় স্বীকার করেছে জঙ্গি সংগঠন আইএস। গীর্জার যাজক ৮৪ বছর বয়স্ক জ্যাকুয়েস হ্যামেলকে গলাকাটা অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। হামলার সময় একজন যাজক, দুই জন নান এবং দুই জন উপাসনাকারী উপস্থিত ছিলেন। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র পিয়েরে হেনরি ব্রান্ডেট জানান, গীর্জা থেকে বের হওয়ার সময় দুই হামলাকারী পুলিশের গুলিতে নিহত হয়। ফরাসি প্রেসিডেন্ট ফ্র্যাসোয়া ওঁলাদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে এটাকে বর্বরোচিত বলে বর্ণনা করেছেন। তিনি বলেন, এ হামলা ক্যাথলিক সম্প্রদায় ও পুরো ফ্রান্সের ওপর আঘাত। ভ্যাটিকান বলেছে, এটা একটি ভয়াবহ সংবাদ। সাম্প্রতিক দিনগুলোতে যেসব সহিংসতা হচ্ছে দুঃখজনকভাবে এ ঘটনা তার সঙ্গে যোগ হলো। অসম্ভব বেদনা আর উদ্বেগ সৃষ্টি করেছে এ ঘটনা। বলা হয়েছে, আমরা বিশেষভাবে মর্মাহত এ কারণে যে, বিভিষীকাময় এ হামলা ঘটেছে গীর্জার ভেতরে। যেখানে সৃষ্টিকর্তার ভালোবাসার কথা বলা হয়। উল্লেখ্য যে, মাত্র দুই সপ্তাহ আগে নিস শহরে জনতার উপর ট্রাক চালিয়ে ৮৪ জনকে হত্যা করে এক জঙ্গি। আহত হয় তিন শতাধিক।
লন্ডন থেকে বিস্তারিত জানিযেছেন মতিউর রহমান চৌধুরী।

XS
SM
MD
LG