অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

দার্জিলিং দূর্যোগ এড়ানো সম্ভব ছিল মনে করেন বিশেষজ্ঞরা

  • গৌতম গুপ্ত

প্রচন্ড বৃষ্টির ফলে দার্জিলিং পাহাড়ে ধ্বস নেমে যে ৩৮ জনের মৃত্যু হলো , তা হয়ত অনেকটাই এড়ানো যেত ভারতীয় ভূতত্ব জরিপ বিভাগের বিশেষজ্ঞদের সতর্ক বার্তায় আমল দিলে। জিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া ২০০৬ সালেই হিমালয়ের ধ্বসপ্রবণ এলাকাগুলির যে তালিকা পশ্চিমবঙ্গ সরকারের হাতে তুলে দিয়েছিল, তার মধ্যে ছিল টংলিং গ্রামও। এই গ্রামেই ধ্বসে ৩৮ জন মৃতের মধ্যে ২০ জন ছিলেন। বৃহস্পতিবার এলাকা পরিদর্শনে এসে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মেনে নেন, এই এলাকার নরম মাটিতে পাহাড় কেটে বাড়িঘর নির্মাণ অনুচিত হয়েছে। ভূতাত্বিকদের পরামর্শ কানে না তুললে আরও এমন বিপর্যয় যে ঘটতেই থাকবে, তাতে সন্দেহ নেই।

ও দিকে, সিকিমের সঙ্গে বাকি দেশের সংযোগকারী একমাত্র সড়কটি ধ্বস নেমে এখনও বন্ধ। আরও বৃষ্টি না পড়লে শনিবার সড়কটি খুলে যেতে পারে বলে সরকারি কর্তাদের আশা।

XS
SM
MD
LG