অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

হ্যালো ওয়াশিংটন : সার্কের সংকট ও সম্ভাবনা


আমরা সকলেই জানি ১৯৮৫ সালে ঢাকায় সার্ক বা দক্ষিণ এশীয় আঞ্চলিক সহযোগিতা সংগঠনের আনুষ্ঠানিক সূচনা প্রথম সম্মেলনের মাধ্যমে যদিও ১৯৮০ সাল থেকেই এ রকম আঞ্চলিক সহযোগিতা সংগঠন গড়ে তোলার ব্যাপারে আলাপ আলোচনা চলছিল মূলত বাংলাদেশেরই উৎপত্তি । ১৯৮১ সালের অগাস্ট মাসে কলম্বোতে সার্ক গঠনের বিষয়ে আলোচনায় সহযোগিতার ক্ষেত্রগুলো ও চিহ্নিত করা হয়। সার্কের সনদ ১৯৮৫ সালের আটই ডিসেম্বর অনুমোদিত হয় ঢাকার শীর্ষ সম্মেলনে । গোড়াতে বাংলাদেশ , ভূটান, ভারত , মালদ্বীপ , নেপাল , পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা । পরে ২০০৭ সালে আফগানিস্তান ও সার্কে যোগ দেয়।

কিন্তু সার্কের অর্জন এর সাফল্য এ সব নিয়ে প্রশ্ন থেকেই গেছে। সার্কের যে ৩১ তম সম্মেলন হবার কথা ছিল পাকিস্তানে তা স্থগিত হয়ে যায় অন্তত চারটি দেশ ঐ সম্মেলনে যোগদানে তাদের অপরাগতা জানানোর কারণে। ভারত অভিযোগ করছে যে তার সেনা চৌকিতে সাম্প্রতিক সন্ত্রাসী আক্রমণের জন্য পাকিস্তান দায়ি , বাংলাদেশ বলছে একাত্তরের যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের প্রশ্নে পাকিস্তানের প্রতিক্রিয়া বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে নাক গলানোর শামিল এবং আফগানিস্তানের সঙ্গে ও পাকিস্তানের সম্পর্ক তিক্ত। দিবপাক্ষিক সম্পর্কের এই সব টানা পোড়েন কি সার্ককে অকেজো করে দেবে ? শ্রোতাদের প্রশ্নের জবাবে আজ আমাদের অতিথি প্যানেলিস্টরা সে সম্পর্কেই আলোকপাত করবেন।

আজ আমাদের অতিথি প্যানেলে রয়েছেন , ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক, বিশিষ্ট বিশ্লেষক ড সাদেকা হালিম । । রয়েছেন কোলকাতার মাওলানা াবুল কালাম আজাদ ইনস্টিটিউট অফ এশিয়ান স্টাডিজের সিনিয়র ফেলো , রাষ্ট্র বিজ্ঞানের অধ্যাপক , ড অমিয় চৌধুরী। । আরও আছেন করাচি থেকে সাংবাদিক ও সংবাদ বিশ্লেষক মাসকাওয়াথ আহসান।

XS
SM
MD
LG