অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

হ্যালো ওয়াশিংটন : অন সান সু চির মুক্তি ও মুক্ত বিশ্বের প্রতিক্রিয়া

  • রোকেয়া হায়দার

হ্যালো ওয়াশিংটন : অন সান সু চির মুক্তি ও মুক্ত বিশ্বের প্রতিক্রিয়া

হ্যালো ওয়াশিংটন : অন সান সু চির মুক্তি ও মুক্ত বিশ্বের প্রতিক্রিয়া

এবারে আমাদের কল ইন শোর প্যানেলে অতিথি হিসেবে ছিলেন, সাউথ ক্যারলাইনা বিশ্ববিদ্যায়ের সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগের অধ্যাপক শফিকুর রহমান, নতুন দিল্লীর ইন্সটিটিউট অফ ডিফেন্স স্টাডিজের গবেষক ডঃ শ্রীরাধা দত্ত, নতুন দিল্লীতে ভারত সরকারের ইন্সটিটিউট অফ ম্যানেজমেন্ট এণ্ড এ্যাডমিন্সট্রেশনের প্রাক্তন প্রফেসার অমিতাভ বসু এবং নিউ ইয়র্কের বিশিষ্ট সাংবাদিক মোহাম্মদউল্লাহ। ৬৫ বছর বয়স্কা গনতন্ত্রকামী নেত্রী অন সান সু চি দীর্ঘ সাত বছর গৃহবন্দী থাকার পর গত শনিবার মুক্তি পেয়েছেন । বর্মায় নির্বাচনের পরই সামরিক সরকার তাকে মুক্তি দিলেন । এবং সু চি তাঁর দলের নেতা – কর্মীদের প্রতি ভাষণে বলেছেন, যারাই বর্মায় গণতন্ত্র সমর্থন করবে, তিনি তাদের সঙ্গে একযোগে কাজ করতে আগ্রহী ।

শ্রোতাদের নানা প্রশ্নের জবাবে তাঁরা অন সান সু চির মুক্তির পর নিয়মবিধি মেনে চলে তার রাজনৈতিক কর্মসূচী অব্যাহত রাখতে সক্ষম হবেন কীনা এবং তাকে বন্দী রাখার, তার দলকে নিষিদ্ধ করার ঘটনার পুনরাবৃত্তি হবে কী না সে সব বিষয়ে আলোকপাত করেন। তা ছাড়া নির্বাচনের পর তাঁকে মুক্তি দেওয়ার রাজনৈতিক তাৎপর্যের ওপরও তাঁরা আলোকপাত করেন। অন্যান্য বিষয়ের মধ্যে বর্মার রাজনীতিতে চীন ও পশ্চিমি বিশ্বের প্রভাব এবং অন সান সূচি তার গণতান্ত্রিক চেতনাকে কতটা বহাল রাখতে পারবেন , সে বিষয়গুলো ও উঠে আসে। অতিথিরা বলেন যে ‘অতীতের ঘটনার পুনরাবৃত্তির আশংকা আছে । তবে নির্বাচনের ফলে এটাও বোঝা যাচ্ছে যে সামরিক সরকার আন্তর্জাতিক চাপের কারণেই হোক বা নিজেদের অভ্যন্তরীন মত পার্থক্যের কারণেই হোক, তারা অল্প অল্প করে একটা পরিবর্তনের চেষ্টা করছে । গণতন্ত্রের বিষয়টি এখনও অনেক দূরে । সু চিকে এখন খোলামেলাভাবে সবকিছু করতে দেওয়া হচ্ছে, তবে কখন কোন অজুহাতে আবার যে ভিন্ন পরিস্থিতির দেখা দেবে – সেটা বলা যায় না । তাকে অবশ্যই কিছু নিয়মবিধির আওতায় মুক্তি দেওয়া হয়েছে’ ।

সংশ্লষ্ট

XS
SM
MD
LG