অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভারত পাকিস্তান সম্পর্ক ও প্রতিবেশী দেশসমূহের ওপর তার প্রভাব


হ্যালো ওয়াশিংটনের আজকের বিষয়: “পাকিস্তানের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টার ভারত সফর; ভারত পাকিস্তান সম্পর্ক ও প্রতিবেশী দেশসমূহের ওপর তার প্রভাব।”

আজ এই আলোচনায় অংশ নেন যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রদূত হুমায়ুন কবীর, বাংলাদেশের সাবেক নির্বাচন কমিশনার ও নিরাপত্তা বিশ্লষক ব্রিগেডিয়ার এম সাখাওয়াত হোসেন।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের পররাষ্ট্র ও নিরাপত্তা উপদেষ্টা সারতাজ আজিজ ২৩ শে আগষ্ট নয়াদিল্লি যাবেন। দুই দিনের এ সফরে তিনি ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভালের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন।

গত জুলাইয়ে রুশ নগরী উফায় পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মধ্যে ঘণ্টাব্যাপী বৈঠক হয়। ওই বৈঠকের সমঝোতার জেরে দেশ দুটির উপদেষ্টাদের মধ্যে আলোচনার উদ্যোগ নেওয়া হয়।

তবে ভারতের পাঞ্জাব রাজ্যের গুরুদাসপুরের সাম্প্রতিক সন্ত্রাসী হামলাকে কেন্দ্র করে দুই দেশের মধ্যে নতুন করে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। ভারতের দাবি, গুরুদাসপুরের সন্ত্রাসে জড়িত তিন বন্দুকধারী পাকিস্তান থেকে এসেছে। কিন্তু নয়াদিল্লির অভিযোগ স্পষ্ট ভাষায় নাকচ করে দেয় ইসলামাবাদ। শুধু এই নয়, কাশ্মীরসহ নানাস্থানে সীমান্ত সমস্যা, ইত্যাদি নিয়ে আমরা জানি দুই দেশের বৈরী সম্পর্ক দীর্ঘিদনের; যা এ অঞ্চলের শান্তি ও নিরাপত্তার জন্য কিছুটা হলেও হুমকি।

আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশ্লেষকদের মত হচ্ছে পাকিস্তান ও ভারতের মধ্যে বিদ্যমান বর্তমান অচলাবস্থা নিরসনে আলোচনাই একমাত্র পথ। আর সেই লক্ষ্যেই পাকিস্তানের জাতীয় উপদেষ্টা সারতাজ আজিজ ২৩শে আগষ্ট ভারত সফর করছেন। আসুন শোনা যাক আলোচনা:

XS
SM
MD
LG