অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

দক্ষিণ এশিয়ায় লক্ষ লক্ষ মানুষ মানসিক অথবা স্নায়বিক রোগে ভুগছে যাদের আমরা মানসিক প্রতিবদ্ধী বলে থাকি। এর সঠিক পরিসংখ্যান তেমন একটা নেই। তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে বাংলাদেশের মোট জন-গোষ্ঠির প্রায় ৫ দশমিক ৬ শতাংশ মানুষ প্রতিবন্ধী। আর মানসিক প্রতিবদ্ধীর সংখ্যা এর ৬ দশমিক ৮ শতাংশ। ভারতেও এই সংখ্যা নেহাত কম নয়। দক্ষিণ এশিয়ায় প্রতিবদ্ধীদের যে একটা বিশাল অংশ রয়েছে তারা সব ধরনের সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত এবং এরা প্রতি নিয়তই লঞ্ছনা-বঞ্চনা এবং কখনও কখনও পাশবিক অত্যাচারের স্বীকার হচ্ছেন। কিন্তু এদের অনেকেই সামান্য সাহায্য পেলে বিনা সাহায্যে প্রাত্যহিক কাজ কর্ম করতে সক্ষম হতে পারে। আর এর জন্য প্রযোজন আমাদের দৃষ্টি ভংগীর পরিবর্তন এবং এদের প্রতি সহানুভুতিশীল হওয়া। প্রতিবন্ধীদের সমান সু্যোগ ও অধিকার বিষয়ে জাতীয় সংসদে “ব্যক্তির অধিকার ও সুরক্ষার বিল ২০১৩ পাস হয়েছে।” তবে সর্বক্ষেত্রে এর প্রয়োগ এবং রাষ্ট্রের কর্ম পরিকল্পনা বাস্তবায়ণ এখনো সুদূর পরাহত।
তাহিরা কিবরিয়া


আমরা, আমাদের সমাজ এদের জন্য কি করছে সেই প্রশ্ন এবং জবাব, আমরা খুঁজব শ্রোতাদের প্রশ্নে আর আমাদের বিশিষ্ট অতিথীদের জবাবে।
আজকের অনুষ্ঠানে আমাদের সংগে ছিলেন তিনজন বিশিষ্ট অতিথি।
বাংলাদেশ থেকে আমাদের সংগে যোগ দিয়েছেন ডঃ রওনক জাহান তিনি অর্টিজম ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের চেয়ারপার্সন।
ভারতের কলকাতা থেকে প্রফেসার রনজিত বাসু, কোলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত মনো-বিজ্ঞান বিভাগের সাবেক প্রধান এবং বর্তমানে Indian Institute of Bio-Behavioral Sciences এ কর্মরত আছেন।
এবং আমেরিকার মেরিল্যান্ড রাজ্যের মানসিক রোগ এবং প্রাপ্ত বয়ষ্ক আসক্তি বিষয়ক বিশেষজ্ঞ ড: মারিয়াম পারভিন। তিনি প্রায় ২ দশক এই বিষয়ে কাজ করছেন।
XS
SM
MD
LG