অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

হিউম্যান রাইটস ওয়াচ বাংলাদেশে যুদ্ধাপরাধীদের সুষ্ঠু বিচার সমর্থন করে-ব্র্যাড এ্যাডামস

  • Ahsanul Huq

নিউইয়র্ক ভিত্তিক মানবাধিকার গ্রুপ হিউম্যান রাইটস ওয়াচ বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে এক চিঠিতে বলেছে, ১৯৭১ সালের যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের ক্ষেত্রে তারা সফল আইন ও বিচারসম্মত প্রক্রিয়া সমর্থন করে, যা কিনা সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে ।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচের এশিয়া বিভাগের প্রধান ব্র্যাড এ্যাডামস সম্প্রতি বাংলাদেশ গিয়েছিলেন তাদের বার্ষিক মানবাধিকার রিপোর্ট প্রকাশ উপলক্ষ্যে । তিনি জানান প্রধানমন্ত্রী হাসিনার কাছে চিঠিতে তার সংস্থার পক্ষ থেকে বলা হয় - ‘আমরা সরকারকে বলেছি, যারা এই ধরণের অত্যাচার নির্যাতনের জন্য দায়ী তাদের জবাবদিহি করতে হবে । এবং তা করতে হলে, নিশ্চিত করতে হবে যে বিচার প্রক্রিয়াটা যেন আন্তর্জাতিক বিচারের মান অনুযায়ী সুষ্ঠু হয় । আইনের সকল ধারা রক্ষা করা হয় । এটা অত্যন্ত জরুরী কারণ তা না হলে, যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হচ্ছে – তারা তখন আপীল করতে পারবে এবং সে ক্ষেত্রে দীর্ঘদিন ধরে এই বিচার চলতে থাকবে’ ।

ব্র্যাড এ্যাডামস সম্প্রতি বাংলাদেশে বিচার মন্ত্রী শফিক আহমেদ ও আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রধান কৌঁশুলীর সঙ্গে সাক্ষাত করেন, আলোচনা করেছেন । এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমরা যে সব বিষয়ে চিন্তিত সে বিষয়গুলো নিয়ে তাদের সঙ্গে আলোচনা করি । যাতে বিচার প্রক্রিয়া সুষ্ঠু হয় । যাতে মানুষ আদালতের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সময় মত আপীল করার সুযোগ পায় । যাতে করে তথ্য প্রমান নিয়ে সময় মত বিচার শুরু করা হয় । ভাল সাক্ষী থাকে, সাক্ষীদের নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয় । আন্তর্জাতিক নিয়ম অনুযায়ী, বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী, অভিযুক্তদের মৌলিক অধিকার রক্ষার ব্যবস্থা থাকে’ ।

চার দশক পরে এই বিচার প্রক্রিয়া শুরু করা হবে । তার সুষ্ঠু প্রক্রিয়ার দিকে নজর রাখতে হবে । সংস্থা বলেছে, এই ধরণের বিচার অন্য জায়গাতেও বেশ সফল ভাবেই হয়েছে – তিনি বললেন, ‘অনেক জায়গাতেই এ ধরণের বিচার করা হয়েছে, য়ুগোশ্লাভিয়া, রোয়াণ্ডাতে । বর্তমানে কাম্বোডিয়াতও এই ধরণের বিচার শুরু হয়েছে । অনেক দেশে ভালভাবেই বিচার করা হয়েছে’ ।

চার দশক পর এই বিচারের সব প্রমান পাওয়া যাবে কি না ? তার জবাব ছিল –

‘ঠিক কথাই বলেছেন । এতদিন পরে সব প্রমান পাওয়া যাবে কি না । প্রত্যক্ষদর্শী সাক্ষী পাওয়াটাও হয়তো মুস্কিল হবে । অনেকের স্মৃতি এখন ঠিক স্পষ্ট নয় । এটা এক বিরাট চ্যালেঞ্জ হবে । তবে আমরা অবশ্যই বলতে পারি নাত্সীদের ক্ষেত্রে এ ধরণের পরিস্থিতি আমরা দেখেছি । নাত্সীদের নিয়ে বিচার এখনও চলছে । সুতরাং বাংলাদেশেও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার সুষ্ঠুভাবে হবে বলে তার ধারণা’।

XS
SM
MD
LG