অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত গাদ্দাফির গ্রেপ্তার দাবি করেছে


আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত গাদ্দাফির গ্রেপ্তার দাবি করেছে

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত গাদ্দাফির গ্রেপ্তার দাবি করেছে

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত ICC-র শীর্ষ অভিশংসক দাবী জানিয়েছেন লিবিয় নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফির সহকারীরা যেন তাঁকে পাকড়াও করে বিচারের জন্যে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের হেফাজতে তাঁকে সোপর্দ করেন। হেগের এ অপরাধ আদালত থেকে মূয়াম্মার গাদ্দাফি, তাঁর ছেলে সেইফুল ইসলাম ও তাঁর গোয়েন্দা বিভাগীয় প্রধানের নামে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী হয় গতকাল সোমবার। তারই একদিন পর আজ মঙ্গলবার ঐ অভিশংসক লুইস মরেনো ওকাম্পোর কাছ থেকে এ মন্তব্য এলো। তবে লূইস মরেনো ওকাম্পো জানান – মূয়াম্মার গাদ্দাফির বিরূদ্ধে লড়ছেন যেসব বিদ্রোহি লড়াকূ, তাঁদের সমর্থনে বিমান হামলা দিয়ে মদত জোগান কাজে ব্যাপৃত নেটো বাহিনীর তাঁকে গ্রেফতার করবার আইনী কোনো প্রক্রিয়া নেই। লিবিয়া ইতিমধ্যে ঐ গ্রেফতারী পরোয়ানা নাকচ করেছে – বিচারমন্ত্রী মোহাম্মদ আল গামুদি বলেছেন – আদালতের বৈধতাই লিবিয়া স্বীকার করে না। লিবিয়া অভিযানের কাজে নিযুক্ত নেটো সেনাধিনায়ক বলেছেন – অভিযানে কিছুটা বিরতির জন্যে কিছু কিছু দেশের পক্ষ থেকে বলা হলেও মিত্র বাহিনির বিমান হামলা কমানো হচ্ছেনা । ক্যানডার ঐ সেনাধিনায়ক লিউটেনেন্ট জেনারেল চার্লস বুচার্ড বলেন – অভিযানের চতুর্থ মাস এখন আরম্ভ হলো এবং ইতিমধ্যেই অভিযানে তাত্পর্যপূর্ণ অগ্রগতি অর্জিত হয়েছে, অসামরিক জনগোষ্ঠীর ওপর লিবিয়া সরকারের বাহিনীর আক্রমণ আগের তুলনায় কমেছে।

এখানে ওয়াশিংটনে হোয়াইট হাউসের মূখপাত্র সোমবার রাতে বলেন – মূয়াম্মার গাদ্দাফি যে নিজের বৈধতা খুইয়ে ফেলেছেন, এই গ্রেফতারী পরোয়ানা তার অরেকটি সংঙ্কেত । বৃটেন, ফ্রান্স এবং ইটালী ঐ গ্রেফতারী পরোয়ানায় সাধুবাদ জানিয়েছে।

XS
SM
MD
LG